নতুন কর্মসূচি ঘোষণা শেষে শাহবাগের অবরোধ ছাড়ল মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ

শনিবার, নভেম্বর ২৮, ২০২০

ঢাকা : বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতাকারী হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমির সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীমের গ্রেপ্তার দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে অবরোধ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার বিকেল ৪টা থেকে এক ঘণ্টাব্যাপী শাহবাগ মোড় অবরোধ করে রাখে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। এরপর আগামী ১ ডিসেম্বর সারাদেশে একযোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের ঘোষণা দিয়ে অবস্থান ছাড়েন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও আল মামুনের নেতৃত্বাধীন অংশের নেতাকর্মীরা।

মামুনুল হক ও ফয়জুল করীমের গ্রেপ্তারসহ সাত দফা দাবিতে শাহবাগ মোড়ে রাস্তা আটকে অবস্থান নেন বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী। পরে গণজমায়েত শুরু করেন তারা।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্য থেকে প্রথমে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। মিছিলটি শাহবাগ মোড়ে এসে অবরোধ কর্মসূচি শুরু করে।

বিকেল চারটায় শাহবাগ মোড়ে রাস্তা আটকে অবস্থান নেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও আল মামুনের নেতৃত্বাধীন অংশের বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী। পরে তাঁরা সেখানে গণজমায়েত করেন। একটি মিনি ট্রাকের ওপর মঞ্চ স্থাপন করে দাবির পক্ষে বক্তব্য দেন সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা। কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মঞ্চের কেন্দ্রীয় সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল, সাধারণ সম্পাদক আল মামুন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনেট মাহমুদ ও সাধারণ সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত। বিকেল পাঁচটার দিকে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতা-কর্মীরা সেখান থেকে সরে যান।

মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সাত দফা দাবিতে ১ ডিসেম্বর বেলা তিনটায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সব জেলা ও মহানগর ইউনিটে একযোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হবে। এতেও দাবি পূরণ না হলে আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে।

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের অন্য দাবিগুলোর মধ্যে আছে দেশের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও জেলা-উপজেলায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ; সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে বাংলাদেশে অবিলম্বে ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ করা ও পবিত্র মসজিদ-মাদ্রাসাগুলোতে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা বন্ধ করা।