শেষ মুহূর্তের গোলে শেষ ষোলোয় চেলসি

বুধবার, নভেম্বর ২৫, ২০২০

স্পোর্টস ডেস্ক : অনেকটা সময় এগিয়ে থেকেও রেনের বিপক্ষে পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়েছিল চেলসি। পার্থক্য গড়ে দিলেন বদলি নামা অলিভিয়ে জিরুদ। তার শেষ মুহূর্তের গোলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে উঠেছে ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের দল। প্রতিপক্ষের মাঠে মঙ্গলবার ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে ২-১ গোলে জিতেছে ইংলিশ দলটি।

গ্রুপের আরেক ম্যাচে ক্রাসনোদারকে একই ব্যবধানে হারিয়ে শেষ ষোলোর টিকেট নিশ্চিত করেছে সেভিয়াও। স্প্যানিশ দলটিরও জয়সূচক গোল এসেছে যোগ করা সময়ে।

ম্যাচের ৫ম মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ আসে চেলসির সামনে। কিন্তু ডান দিক থেকে হাডসন-ওডোইয়ের বাড়ানো বল ছয় গজ বক্সের সামনে থেকে অবিশ্বাস্যভাবে উড়িয়ে মারেন টিমো ভেরনার। ২২তম মিনিটে দারুণ এক গোলে দলকে এগিয়ে নেন হাডসন-ওডোই। নিজেদের অর্ধ থেকে ম্যাসন মাউন্টের উঁচু করে বাড়ানো বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে ডান পায়ের শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন এই তরুণ ইংলিশ ফরোয়ার্ড।

সাত মিনিট পর দারুণ এক সেভ করে ব্যবধান বাড়তে দেননি স্বাগতিক গোলরক্ষক গোমিস। খুব কাছ থেকে মাউন্টের নেওয়া শট এক হাতে ফেরান তিনি। ৩২তম মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগ পায় রেন। ডি-বক্সে একজনের শট চেলসির ডিফেন্ডার কুর্ত জুমার পায়ে ব্লকড হওয়ার পর উড়িয়ে মারেন ফরাসি মিডফিল্ডার সিলিকি।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ভেরনার বল জালে পাঠালেও আগেই অফসাইডের পতাকা তোলেন লাইন্সম্যান। ৭৫তম মিনিটে কর্নার থেকে আসা বলে একজনের জোরালো হেড দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে রেনকে হতাশ করেন এদুয়াঁ মঁদি।

নির্ধারিত সময়ের পাঁচ মিনিট বাকি থাকতে রেনকে সমতায় ফেরান গিহাসি। কর্নারে হেডে বল জালে পাঠান তিনি। আসরে চেলসির জালে এটিই প্রথম গোল। যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন জিরুদ। ভেরনারের শট গোলরক্ষক ফেরানোর পর হেডে জাল খুঁজে নেন দ্বিতীয়ার্ধে ট্যামি আব্রাহামের বদলি নামা এই ফরাসি ফরোয়ার্ড।

চার ম্যাচে তিন জয় ও এক ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে চেলসি। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে দুইয়ে সেভিয়া। রেন ও ক্রাসনোদারের ১ পয়েন্ট করে।