যে চার বিষয় অন্যকে জানানো উচিৎ না, চাণক্যের পরামর্শ

বুধবার, নভেম্বর ২৫, ২০২০

লাইফস্টাইল ডেস্ক : আচার্য চাণক্য ভারতীয় নীতিশাস্ত্রের সেরা পণ্ডিতদের মধ্যে অন্যতম। অনেকে মনে করেন চাণক্যের নীতি আজও প্রাসঙ্গিক। কথায় কথায় অনেকে চাণক্যের বিভিন্ন উক্তি তুলে ধরেন। বলা হয়ে থাকে, যিনি চাণক্যের নীতি নিয়মিত মেনে চলেন, তার জীবন থেকে দুঃখ ও দুর্দশা অনেকটা কমে যায়।

পণ্ডিত চাণক্যের মতে, জীবনে এমন চারটি বিষয় আছে, যেগুলো কখনও অন্যের সঙ্গে আলোচনা করা উচিৎ নয়। আসুন সেই চার বিষয় সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-

ব্যক্তিগত সমস্যার কথা

নিজের কোনও সমস্যার কথা সবার সঙ্গে না বলাই চাণক্যের নীতি। ব্যক্তিগত সমস্যার কথা গোপন রাখার কথা বলেছেন চাণক্য। ব্যক্তিগত সমস্যার কথা সবাই জানলে আপনি উপহাসের পাত্র হতে পারেন।

আর্থিক ক্ষতির কথা

জীবনের আর্থিক ক্ষতির কথা কাউকে জানাবেন না। যদি আপনি অর্থ সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যান, তা নিজের মধ্যে চেপে রাখুন। আর্থিক সঙ্কটের কথা জেনে কেউ আপনাকে সাহায্য করবে না, আপনার পাশে দাঁড়াবে না, দাঁড়ালেও তা হবে কপটতা। চাণক্যের মতে, সমাজের দরিদ্র মানুষ কখনই সম্মান পায় না।

স্ত্রীর চরিত্রের কথা

অন্যের কাছে নিজের স্ত্রীর চরিত্র সবসময় লুকিয়ে রাখা উচিৎ, এমনই লেখা আছে চাণক্যের নীতিকথায়। যারা নিজের স্ত্রীকে নিয়ে সবার সামনে বলেন, অনেক ক্ষেত্রে তারা এমন কিছু বলে ফেলেন, যা শোভনীয় নয়।

অবহেলিতদের থেকে অপমানিত হওয়ার কথা

চাণক্য বলেন, অবহেলিতদের থেকে অপমানিত হওয়ার কথা গোপন রাখুন। এই ঘটনার বহিঃপ্রকাশ যেকোনো ব্যক্তিকে হাস্যকর উপদানে পরিণত করতে পারে। যা ওই ব্যক্তির গর্ববোধে আঘাত করবে, অহংকে আঘাত করবে।