আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিএনপি নেতাকর্মীদের হুমকি দিচ্ছে: জাহাঙ্গীর

শুক্রবার, অক্টোবর ৩০, ২০২০

ঢাকা : ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের বিএনপি প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেছেন, আওয়ামী লীগ যতই ভয়ভীতি দেখাক কোনো ভয়ে নেতাকর্মীরা ভীত হবে না। আগামী ১২ নভেম্বর নেতাকর্মী সমর্থক ও এলাকার ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে যাবেন, তারা ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন ফলাফল নিয়েই ঘরে ফিরবেন।

৮ম দিনের মতো শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) খিলক্ষেতের বড়ুয়া বাগানবাড়ি থেকে গণসংযোগ শুরু করে নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে ভোটাদের উদ্দেশ্যে জাহাঙ্গীর হোসেন এসব কথা বলেন।

এ সময় জাহাঙ্গরের সাথে ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, আব্দুল খালেক, ইশরাক হোসেন, মহানগর নেতা হযরত আলী, এস এম ফজলুলহকসহ কয়েকহাজার নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

খিলক্ষেতের বড়ুয়া বাগানবাড়ি থেকে গণসংযোগ শুরু করলে পথে পথে বিভিন্নস্তরের নেতাকর্মীরা এ গণসংযোগে যোগ দেন। উপস্থিত নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশ্যে জাহাঙ্গীর বলেন, ঢাকা-১৮ আসনে ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার উঠেছে। এই গণজোয়ারে ভীত হয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আমাদের নেতাকর্মীদের ঘরে ঘরে যাচ্ছে, তাদের ঘরে না থাকার জন্য হুমকি করছে।

এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার না করলেও রাতের বেলায় পোশাকধারী পুলিশ ও সাদা পোশাকে ডিবি পুলিশ বাসায় যাচ্ছে। গিয়ে পরিবারের নারী সদস্যদের তারা বলছেন, আপনার সন্তান, স্বামী যেন আগামী ১২ নভেম্বও পর্যন্ত যেন বাসায় না থাকেন। থাকলে তাদের সমস্যা হবে।

অথচ আমাদের নেতাকর্মীদের নামে কোনো ওয়ারেন্ট নেই। আওয়ামী লীগ প্রার্থী নিজেও আমাদের নেতৃবৃন্দকে হুমকি দিচ্ছেন। আপনারা প্রার্থীর ও তার আশপাশের লোকদের কল রেকর্ড দেখেন, তাহলেই বুঝতে পারবেন আমাদের নেতাকর্মীদের কীভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছে।

জাহাঙ্গীর বলেন, আজকে আমরা গণসংযোগ করছি ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডে। এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আলী আকবর আলী আমাদের দলের। বিগত সবগুলো নির্বাচনে এখানে ধানের শীষের প্রার্থী জয়লাভ করেছে। এবারও সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট হলে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের প্রার্থী জয়লাভ করবে।

নির্বাচন কমিশন ও সরকারের ভূমিকা টেনে এস এম জাহাঙ্গীর বলেন, সরকার ও নির্বাচন কমিশন যৌথভাবে প্রতিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে বিজয়ী করতে নানা পরিকল্পনা করে-এটা সবার জানা।

সেজন্যই আমরা ভোটাদের দুয়ারে দুয়ারে যাচ্ছি। তাদের বলছি, আপনারা ভোট কেন্দ্রে আসেন, পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে ফলফল নিয়ে ঘরে ফেরেন।

আমাদের নেতাকর্মীরা আপনাদের নিরাপত্তা দেবে। আমরাও দেখতে পাচ্ছি এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। ভোট দেয়ার জন্য। আশা করি ভোটাররা আওয়ামী লীগ ও সরকারের সকল অন্যায় অত্যাচার, জুলুম ও ধর্ষণের বিরুদ্ধে রায় দেবে।