বাংলাদেশ চীনের ঋণে আটকে পড়ার শঙ্কা নেই: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৯, ২০২০

ঢাকা : চীনা ঋণের জালে আটকে পড়ার কোন শঙ্কা নেই বাংলাদেশের। কেননা, নিজস্ব চাহিদা আর সক্ষমতার সমন্বয় করেই, বেইজিংয়ের সঙ্গে সহযোগিতামূলক সম্পর্কের উন্নয়ন করছে ঢাকা বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার, সিপিডির ভার্চুয়াল আলোচনায় দু’দেশের সম্পর্ককে এভাবে বিশ্লেষণ করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

তিনি বলেন, ‘আমরা চীনা বিনিয়োগকারীদের চাহিদা জানতে কর্তৃপক্ষের সাথে খুব নিবিড়ভাবে কাজ করছি। চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় ৮০০ একর জমিতে চীনা ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠা হওয়ায় দেশটির বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আগ্রহ বাড়ছে। কোভিড-১৯ অবস্থার উন্নতি হলে এ জাতীয় আরো উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হবে। তিনি পারস্পরিক সুবিধার জন্য চীনের সাথে ঘনিষ্ঠ অর্থনৈতিক সহযোগিতার বিষয়ে বাংলাদেশের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন।

সিপিডির ভার্চুয়াল আলোচনায় জানানো হয়, বাংলাদেশের বিশ্ববাণিজ্যের ১৯ শতাংশ হয় চীনের সাথে। অর্থনীতির পাশাপাশি ভুরাজনৈতিক জটিলতার সমাধানও হতে পারে চীনের হাত ধরেই। আর চীনা রাষ্ট্রদূতের অভিযোগ, অবকাঠামো দুর্বলতা, রাষ্ট্রীয় সংস্থার অদক্ষতা আর আমলাতন্ত্রে , বাংলাদেশে হোঁচট খাচ্ছে চীনের বিনিয়োগ আর বাণিজ্য।

তবে অনুষ্ঠানে আলোচকদের মত, এলডিসি পরবর্তি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায়, সবচেয়ে বড় সহযোগিতা পাওয়া যেতে পারে চীনের কাছ থেকে।