পরিচালকের ‘আপত্তিকর প্রস্তাব’, এবার পাল্টা হুমকি পায়েলের

সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডের দাপুটে পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনে গেল ২২ সেপ্টেম্বর মুম্বাইয়ের ভারসোভা থানায় মামলা করেছেন অভিনেত্রী পায়েল ঘোষ।

সেই অনুরাগের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়া না হলে এবার অনশনে নামবেন বলে হুমকি দিলেন অভিনেত্রী। পায়েলের আইনজীবী নীতিন সতপুতে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

অনুরাগ কাশ্যপ ধনাঢ্য ও প্রভাবশালী বলেই কি তাকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না? এমন প্রশ্নও তুলেছেন পায়েল।

একইসঙ্গে অনুরাগের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগে মুম্বাই পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয় থাকারও অভিযোগ এনে পায়েল বলেছেন, ‘আমাদের কয়েকদিন ধরে এদিক-ওদিক ছুটিয়ে মারছে মুম্বাই পুলিশ। অন্যদিকে অভিযুক্ত নিশ্চিন্তে নিজের এসি রুমে বসে আছেন।’

এদিকে পায়েলের আইনজীবী নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে লিখেছেন- ‘পায়েল ঘোষ ভারসোভা থানায় যাবে। কেন অপরাধীকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না? যদি কোনও গরিব মানুষ ধর্ষণের মতো অপরাধ করে, তাহলে পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে তাকে গ্রেফতার করে। তবে কি অনুরাগ কাশ্যপ বড়লোক বলেই তাকে গ্রেফতার করছে না মুম্বাই পুলিশ?’

গেল ২২ সেপ্টেম্বর ভারসোভা থানায় ভারতীয় সংবিধানের ৩৭৬, ৩৫৪, ৩৪১ ও ৩৪২ ধারা অনুযায়ী অনুরাগের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন পায়েল।

এর আগে অনুরাগের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলে গেল ১৯ সেপ্টেম্বর রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে এক পোস্টে পায়েল লিখেন- ‘অনুরাগ কাশ্যপ খুব খারাপভাবে, জোরাজুরি করে আমার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করতে চেয়েছে। নরেন্দ্র মোদীজি দয়া করে কিছু করুন। লোকে জানতে পারুক শিল্পীসত্তার আড়ালে কোন রাক্ষস লুকিয়ে আছে। জানি, আমার ক্ষতি হতে পারে। আমার নিরাপত্তার ঝুঁকিও আছে। প্লিজ সাহায্য করুন।’

সেখানে পায়েল লিখেন- ৫ বছর আগে নিজের বাড়িতে তাকে যৌন হেনস্তা করেন অনুরাগ। পরিচালকের কুপ্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ‘অশালীন’ শব্দ শুনতে হয় তাকে।

৫ বছর আগের সেই দিনটির বর্ণনা দিতে গিয়ে পায়েল সম্প্রতি এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘তখন ‘বম্বে ভেলভেট’ ছবির শুটিং চলছিল। অনুরাগের সঙ্গে প্রথম দেখা ছিল ইতিবাচক। দ্বিতীয়বারই তিনি আমাকে শারীরিক সম্পর্কের জন্য জোরাজুরি করেন। আমাকে মিটিং শেষে একটি ঘরে নিয়ে যান। তারপর ধীরে ধীরে নিজের পোশাক খুলতে শুরু করেন তিনি। আমাকে জোর করার চেষ্টা করেন।’

পায়েল বলেন, ‘তখন আমি তাকে জানাই যে, আমি খুব একটা স্বস্তি বোধ করছি না। তখন উনি বলেন, ‘সবাই এসব বলে থাকে’। ধীরে ধীরে তিনি আমার কাছে আসেন। আবারও আমি আমার অস্বস্তির কথা জানালাম। তখন অনুরাগ বললেন- ‘ঠিক আছে, পরেরবার যখন আসবে তৈরি হয়ে এসো’। সেটা শুনেই আমি ওই বাড়ি ছেড়ে চলে যাই।’

২০১৪ সালে ঘটে যাওয়া এ ঘটনার কোনও প্রমাণ পায়েলের কাছে নেই বলেও জানান তিনি।