ছাত্রলীগের গণধর্ষন ও নিপীড়নের মাত্রা পাকিস্তানীদের চেয়ে ভয়াবহ : লেবার পার্টি

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

ঢাকা: সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীর কাছ থেকে স্ত্রীকে কেড়ে নিয়ে এবং খাগড়াছড়িতে চাকমা প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের নিষ্ঠুর ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরিদ উদ্দিন ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব লায়ন ফারুক রহমান।
আজ ২৭ সেপ্টেম্বর (রবিবার) লেবার পার্টির দফতর সম্পাদক আমানুল্লাহ মহব্বত স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ছাত্রলীগ সরাদেশে চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, ইভটিজিং ও গনধর্ষনের মহোৎসব চালাচ্ছে। বেসামাল ছাত্রলীগ হত্যা খুন ও সন্ত্রাস নৈরাজ্যের লাগাম টানতে স্বয়ং শেখ হাসিনা ব্যর্থ হয়েছে। ছাত্রলীগের জঙ্গিবাদী কার্যক্রমে দেশবাসি, আওয়ামী লীগও অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। ধর্ষনের সেঞ্চুরী উৎসব পালনকারী ধর্ষক মানিকের দৃষ্টান্তমুলক বিচার হলে ও দেশে আইনের শাসন কায়েম থাকলে এসব অপ্রতিকর ও লজ্জাজনক গণধর্ষণের মতো বর্বরতম ঘটনার ঘটতো না। ছাত্রলীগের গণধর্ষন ও নারী নির্যাতন নিপীড়নের সীমা পাকিস্তানীদের চেয়ে ভয়াবহ।
নেতৃবৃন্দ বলেন, সকল ধর্ষকের দলীয় পরিচয় ও রাজনৈতিক আশ্রয় আছে এবং যেকোনো ধরনের অপরাধ করে পার পেয়ে যাওয়ার একটা অলিখিত নিশ্চয়তাও তাদের মনে কাজ করে থাকে। যেকোনো সভ্য সমাজের জন্য এটা ভয়াবহ উদ্বেগের বিষয়। তারা আওয়ামী লীগ ও অংগ সংগঠনের সাথে জড়িত। আওয়ামী লীগ অবৈধ ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে সারাদেশে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও সেচ্ছাসেবকলীগকে লেলিয়ে দিয়েছে। পাপিয়াদের মতো পতিতাদের সরদার সৃষ্টি করে এমপি-মন্ত্রী ও আমলাদের মনোরঞ্জনের জন্য অসামাজিক কার্যক্রমকে বিস্তৃত করেছে। তাই আওয়ামী জাহিলিয়াত থেকে দেশবাসীকে বাঁচাতে দেশপ্রেমিক জাতীয়তাবাদী ও ধর্মীয় মুল্যোবোধে বিশ্বাসীদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। বিজ্ঞপ্তী