ছাত্রাবাসে তরুণীকে ধর্ষণ : দোষীদের শাস্তির দাবিতে সড়ক অবরোধ

শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০

সিলেট : সিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে নববধূ স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় দোষীদের শাস্তির দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে কলেজের সামনে বিক্ষোভ করেন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠন ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ সময় কলেজের প্রধান ফটকের সামনে সিলেট-তামাবিল মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে টায়ার পুড়িয়ে সড়ক অবরোধ করেন তারা। এতে সড়কের দুই পাশে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়।

বিক্ষোভকারীরা বলেন, ন্যক্কারজনক এ ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত ছাত্রদের কলেজ থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করতে হবে। একই সঙ্গে তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

গতকাল শুক্রবার সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হন ওই তরুণী। রাত সাড়ে ৯টার দিকে টিলাগড় এলাকার কলেজটির ছাত্রাবাসে এ ঘটনা ঘটে। ওই তরুণীকে ক্যাম্পাস থেকে তুলে ছাত্রাবাসে নিয়ে ধর্ষণ করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহপরান থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলায় ছাত্রলীগের ৬ নেতাকর্মী ও অজ্ঞাত আরও ৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার আসামিরা হলেন- এমসি কলেজ ছাত্রলীগের নেতা ও ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র শাহ মো. মাহবুবুর রহমান রনি (২৫), মাহফুজুর রহমান মাসুম (২৫), সাইফুর রহমান (২৮), রবিউল ইসলাম (২৫), অর্জুন লস্কর (২৫) ও তারেকুল ইসলাম তারেক (২৮) ।

তাদের মধ্যে অর্জুন ও তারেক (২৮) বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মী বলে জানা গেছে।

আসামিদের মধ্যে সাইফুরের বাড়ি বালাগঞ্জে, রবিউলের দিরাইয়ে, মাছুমের কানাইঘাটে, অর্জুনের জকিগঞ্জে, রনির হবিগঞ্জে ও তারেকের বাড়ি সুনামগঞ্জে।