অভিনব কায়দায় প্রতারণা

আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে লাপাত্তা দম্পতি

শুক্রবার, আগস্ট ২১, ২০২০

ঢাকা : অভিনব কায়দায় প্রতারণা করে, প্রায় ৫০ জন মানুষের কাছ থেকে, আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে লাপাত্তা হয়েছেন, এক দম্পতি। ঘটনাটি রাজধানীর উত্তর কাফরুল এলাকার। আবুল কালাম আজাদ এবং তার স্ত্রী, পেশায় দোকানকার।

কাউকে মিথ্যে প্রলোভন দেখিয়ে, আবার কারো কাছে ভূয়া দলিলে, দোকান বিক্রির কথা বলে, তারা এসব অর্থ আত্মসাৎ করেছে। এ ঘটনায়, রাজধানীর কাফরুল থানায় একাধিক সাধারণ ডায়েরি হয়েছে। অভিযোগ নিয়ে অপেক্ষায় আরো কমপক্ষে, ৩০ জন।

আবুল কালাম আজাদ ও তার স্ত্রী অজিফা বেগম থাকতেন, রাজধানীর উত্তর কাফরুল এলাকায়। তারা গত প্রায় দু’বছরে, কমপক্ষে ৫০ জন ব্যাক্তি এবং একাধিক ক্ষুদ্রঋণ দেয়া প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে, আড়াই কোটির বেশির টাকা নিয়ে লাপাত্তা। শুধু একটি ভূয়া এই দলিলে, দোকানের অগ্রিম বাবদ তিনি ২০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

ভুক্তভোগীরা বলছেন, মালিকের স্বাক্ষরও করেছেন, জাল। আবুল কালাম আজাদ, পুরুষদের আর অজিফা বেগম, নারীদের প্রতারণার টার্গেট বানাতেন।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, এই দম্পতি, টাকা ধার নেয়ার জন্য মূলত ৩টি কৌশল করতেন। এক. সামর্থবান কিন্তু প্রতিপত্তিহীন পরিবারকে টার্গেট করতেন। দুই. দোকানে মালামাল তোলার নাম করে লভ্যাংশের বিনিময়ে টাকা ধার নিতেন। আর তিন. জমি কিংবা দোকানের ভূয়া দলিল বন্ধক রেখে অগ্রিম হিসেবে টাকা নিতেন। হঠাৎ করে, রাতারাতি পুরো পরিবার লাপাত্তা হয়ে যাওয়ার পরে, সব পাওনাদারদের টনক নড়ে। তারপরে, তারা কাফরুল থানায়, সাধারণ ডায়েরি করেন। বাকীরা প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম উজ্জামান জানান, লাপাত্তা হওয়ার পর থেকে, প্রতারক দম্পতি’র মুঠোফোনগুলো বন্ধ রয়েছে। তারা আইনানুগ ব্যবস্থা নিচ্ছেন।যাহোক, কাফরুল ছেড়ে এই জুটি অন্য কোথাও নতুন প্রতারণার দোকান খুলবেন কীনা তা, কে বলতে পারবে?