৩ কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা: শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়কসহ পাঁচ কর্মকর্তা রিমান্ডে

শনিবার, আগস্ট ১৫, ২০২০

যশোর : যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে তিন কিশোর হত্যা ও ১৫ জন আহতের মামলায় গ্রেফতার কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়কসহ পাঁচ কর্মকর্তার রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

শনিবার বিকালে যশোর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মাহাদি হাসান তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে শুক্রবার রাতে তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়।

আদালতে হাজির করে আসামিদের সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা চাঁচড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রোকিবুজ্জামান। শুনানি শেষে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক (সহকারী পরিচালক) আব্দুল্যা আল মাসুদ, সহকারী তত্ত্বাবধায়ক (প্রবেশন অফিসার) মাসুম বিল্লাহ, ফিজিক্যাল ইন্সট্রাক্টর একেএম শাহানুর আলমকে পাঁচদিনের ও সাইকো সোশ্যাল কাউন্সিলর মুশফিকুর রহমান ও কারিগরি প্রশিক্ষক (ওয়েল্ডিং) ওমর ফারুককে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

১৪ আগস্ট সন্ধ্যায় হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় যশোর কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেন নিহত পারভেজ হাসান রাব্বি (১৮) পিতা খুলনার দৌলতপুরের মহেশ্বরপাশা পশ্চিম সেনপাড়ার রোকা মিয়া। মামলায় শিশু উন্নয়ন কেন্দ্র কর্তৃপক্ষকে বিবাদী করা হয়। মামলার পর পুলিশ হেফাজতে নেয়া ১০ কর্মকর্তা-কর্মচারীর মধ্যে ৫ জনকে গ্রেফতার করে।

শনিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেন বলেন, ঘটনার দিন ওই মিটিংয়ে ১৯ জন উপস্থিত ছিলেন। ১০ কর্মকর্তাকে হেফাজতে ও অন্যদের জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্য চুলচেরা বিশ্লেষণ করে প্রাথমিকভাবে ৫ জন কর্মকর্তার সংশ্লিষ্টতার সত্যতা পাওয়া গেছে।

নির্যাতনে ৭-৮ জন কিশোরের সংশ্লিষ্টতাও পাওয়া গেছে। তারা দীর্ঘদিন ওই কেন্দ্রে থাকায় কর্মকর্তাদের আশীর্বাদপুষ্ট ছিল। সার্বিক বিষয়ে তদন্ত হবে। যাচাই বাছাই করে প্রতিবেদন দেয়া হবে। যাতে কেউ অহেতুক হয়রানির শিকার না হয়, সেই বিষয়টি শুরু থেকেই গুরুত্ব দিচ্ছি।