জাতির জনক সব দলের, সব মানুষের : জি এম কাদের

শনিবার, আগস্ট ১৫, ২০২০

ঢাকা : জাতীয় পার্টির চেয়াম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের বলেছেন, জাতির জনক কোনো দল বা গোষ্ঠীর হতে পারে না। জাতির জনক সব দলের, সব মানুষের। তিনি বলেন, আজকে যারা রাজনীতি করছে, সবার উচিত জাতির জনককে মেনে নিয়ে রাজনীতি করা। তাঁর অবদানকে স্বীকার করেই রাজনীতি করতে হবে।

আজ শনিবার দুপুরে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের বনানী অফিস মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জি এম কাদের এসব কথা বলেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি। বঙ্গবন্ধুর ডাকে এ দেশের সব মানুষ স্বাধীনতাযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। দেশ ও মানুষের কল্যাণে বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ অপরিসীম।

বঙ্গবন্ধু আন্দোলন-সংগ্রামের রোলমডেল, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সব প্রেরণার উৎস। তাঁর জীবনী অনুসরণ করলে সব সমস্যার সমাধান পাওয়া সম্ভব। তিনি সব অন্যায় ও অনিয়মের প্রতিবাদ করে গণমানুষের আস্থা ও ভালোবাসার প্রতীক হয়ে উঠেছিলেন। তাই শক্তিশালী ও নির্যাতনকারী পাকিস্তানি সরকারের নির্দেশনা অমান্য করেও দেশের মানুষ বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ মেনে চলেছেন।’

এ সময় জি এম কাদের দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমছে না বলেও মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, কিন্তু স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়ের অভাবে এখন করোনা চিকিৎসা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

সংক্রমণ কমছে না কিন্তু কোভিড হাসপাতালগুলোকে নন-কোভিড করা হচ্ছে। কোনো কোনো হাসপাতাল থেকে করোনা রোগীদের বের করে দেওয়া হচ্ছে। করোনা রোগীরা অক্সিজেন কিনে বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছে, এটা আমাদের জন্য দুর্ভাগ্যজনক। তিনি উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি বন্ধ এবং দুর্নীতিবাজদের বিচারের মুখোমুখি করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

এ সময় জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, জাতির জনকের প্রশ্নে কোনো বিতর্ক নেই। শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়ে কিংবদন্তি নেতা হয়েছেন।

এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন দলের কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবুল হোসেন বাবলা, মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, সাবেক মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মো. মসিউর রহমান রাঙ্গা, প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আব্দুস সবুর আসুদ, আজম খান, শামীম হায়দার পাটোয়ারী, রেজাউল ইসলাম ভুঁইয়া, আব্দুস সাত্তার মিয়া, আলমগীর সিকদার লোটন প্রমুখ। সভা পরিচালনা করেন জাতীয় পার্টির যুগ্ম দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ আলম।

এ সময় অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য শফিকুল ইসলাম সেন্টু, নাজমা আখতার, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট নুরুল আজহার শামীম, শাহ-ই আজম, পনির আহমেদ এমপি, মো. নুরুল ইসলাম তালুকদার, ভাইস চেয়ারম্যান আহসান আদেলুর রহমান এমপি প্রমুখ।