লেবাননে ক্ষমতা যাচ্ছে সেনাবাহিনীর হাতে

শুক্রবার, আগস্ট ১৪, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : লেবাননে জারি করা জরুরি অবস্থার অনুমোদন দিয়েছে দেশটির পার্লামেন্ট। এর মধ্য দিয়ে কার্যত ক্ষমতা যাচ্ছে সেনাবাহিনীর হাতে।

গত সপ্তাহের ভয়াবহ বিস্ফোরণের পর দু’সপ্তাহের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করে দেশটির মন্ত্রিসভা। আটদিনের মধ্যেই মিললো আইনসভার অনুমোদন। যা সংবিধান অনুযায়ী বৈধতার জন্য প্রয়োজন ছিল। এর ফলে বাক স্বাধীনতা, সমাবেশ ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর সেনাবাহিনীর প্রভাব আন্দোলনের মুখে পদত্যাগে বাধ্য হয় লেবাননের সরকার।

উল্লেখ্য, বৈরুত বন্দরে মজুত রাখা বিপুল পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের বিস্ফোরণে গত ৪ আগস্ট অন্তত ২০০ জনের প্রাণহানি ঘটে এবং আরও ৬ হাজার মানুষ আহত হন। বিধ্বস্ত হয় ৭০ হাজার ঘরবাড়ি। এরপর দিনই জনতার বিক্ষোভের মুখে সরকার ভেঙে দেওয়ার আগে জরুরি অবস্থার ঘোষণা দেয় মন্ত্রিসভা।

লেবাননের আইন অনুযায়ী জরুরি অবস্থা ঘোষণার অন্তত আটদিনের মধ্যে তা পার্লামেন্টে অনুমোদিত হতে হবে। ভোটে জরুরি অবস্থা বাতিলও করা যেত। আইনের মধ্যে থেকে ভোটাভুটিতে বৃহস্পতিবারই দুই সপ্তাহের জরুরি অবস্থা অনুমোদন দিল বর্তমানে দেশটির ১১৯ সদস্যের পার্লামেন্ট। জরুরি অবস্থা জারির বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছেন একমাত্র এমপি ওসামা সাদ।

ঘোষিত জরুরি অবস্থা বাস্তবায়ন করবে সেনাবাহিনী। মূলত এ জরুরি অবস্থা অনুমোদনের মধ্য দিয়ে সেনাবাহিনীর হাতে ক্ষমতা তুলে দেওয়া হলো।