কিশোরগ্যাংয়ের হাত থেকে বাঁচতে শীতলক্ষ্যায় ঝাঁপ, সাংবাদিকপুত্র ও ভাতিজার মৃত্যু

মঙ্গলবার, আগস্ট ১১, ২০২০

নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জের বন্দরে কিশোর গ্যাংয়ের ধাওয়ায় শীতলক্ষ্যা নদীতে ডুবে মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে দুই শিক্ষার্থীর। সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নদী থেকে ওই দুই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়। এর আগে সোমবার বিকেলে কিশোরগ্যাংয়ের হামলা থেকে বাঁচতে শীতলক্ষ্যা নদীতে ঝাঁপ দেয় তারা।

নিহত দুই শিক্ষার্থী হলো জিসান (১৫) ও মিহাদ (১৮)। নিহত জিসান বন্দর প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিনের ছেলে এবং বন্দর বিএমইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। অপরদিকে মিহাদ বন্দর কদম রসুল কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী এবং বন্দর প্রেস ক্লাবের সভাপতি কমল খানের ভাতিজা।

এ ঘটনায় দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে দুই কিশোর গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘাটের একটি নৌকায় ওঠে নিহাদ ও জিসান। কিশোর গ্রুপের একটি দল ওই নৌকাতে গিয়ে উঠলে বিপক্ষ গ্রুপটিও ধাওয়া করে একই নৌকাতে ওঠে। বিপক্ষ গ্রুপের হামলা থেকে বাঁচতে নৌকায় ওঠা প্রথম গ্রুপ নদীতে ঝাঁপ দেয়। তাদের দেখাদেখি মিহাদ এবং জিসানও নদীতে ঝাঁপ দেয়। তবে অন্যরা সাঁতরে পাড়ে উঠলেও নিখোঁজ হয় মিহাদ ও জিসান। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে তাদের লাশ ভেসে উঠলে উদ্ধার করে স্থানীয়রা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বন্দর থানার ওসি ফখরুদ্দিন ভূইয়া জানান, দুই শিক্ষার্থীর লাশ নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।