ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যেতে ক্রিকেটই ছেড়েছিলেন শোয়েব আখতার!

রবিবার, আগস্ট ২, ২০২০

স্পোর্টস ডেস্ক : ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা পেসার বলা হয় শোয়েব আখতারকে। অথচ পাকিস্তানী স্পিডস্টার জানালেন, দুই দশক আগে কারগিল যুদ্ধের জন্য ক্রিকেটই ছেড়ে দিতে চেয়েছিলেন তিনি। এমনকি সেই সময় ইংলিশ কাউন্টির দেয়া লোভনীয় অংকের অর্থ প্রস্তাবও ফিরিয়ে দিয়েছিলেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস!

এআরওয়াই টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা জানিয়েছেন শোয়েব আখতার।

১৯৯৯ সালের মে থেকে জুলাইয়ের মধ্যে ভারত এবং পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর মধ্যে কারগিল যুদ্ধ সংগঠিত হয়। সেই যুদ্ধে দুই দেশের প্রায় শ’খানেক সেনা মারা যান। দুই দশক আগের সেই ঘটনা মনে করিয়ে দিয়ে শোয়েব আখতার বলেন, সেসময় সব ছেড়েছুড়ে দেশের জন্য মরতেও প্রস্তুত ছিলেন তিনি!

শোয়েব বলেন, মানুষ এই ঘটনাটা খুব কমই জানে। কারগিল যুদ্ধের সময় কাউন্টি ক্লাব নটিংহ্যামশায়ারের সঙ্গে আমার ১ লাখ ৭৫ হাজার পাউন্ডের চুক্তি ছিল। লোভনীয় চুক্তি নিঃসন্দেহে। কিন্তু যখন যুদ্ধ শুরু হয় আমি আর খেলতে যাইনি।

তিনি আরো বলেন, আমি লাহোরের বাইরে দাঁড়িয়ে ছিলাম। একজন জেনারেল জিজ্ঞেস করলেন, তুমি এখানে কি করছো? আমি বললাম আমি যুদ্ধ করতে চাই। উনি জিজ্ঞেস করলেন, তুমি কি করবা? আমি বললাম, মরবো যখন একসঙ্গেই মরি। আমি দুই বার কাউন্টির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিই, ওরা হতাশ হয়ে পড়লো। কিন্তু এখানকার এই অবস্থা দেখে আমি না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। কাশ্মীরে আমার বন্ধুদেরকে আমি বলি যে আমি যুদ্ধ করতে প্রস্তুত।

সেসময় দেশের জন্য প্রয়োজনে জীবন দিতেও প্রস্তুত ছিলেন শোয়েব আখতার। তিনি বলেন, ভারত থেকে যুদ্ধবিমান এসে যখন আমাদের এখানে আঘাত করতো, আমাদের প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়। আমার তখন প্রচন্ড মেজাজ খারাপ হয়। আমার বউ বারবার বলছিলো, তুমি প্লিজ শান্ত হও। কিন্তু আমি কোনভাবেই শান্ত হতে পারছিলাম না। আমি রাওয়ালপিন্ডি থেকে এসেছি এবং জানি যুদ্ধ কি জিনিস!

পাকিস্তানের হয়ে এক দশকেরও বেশি সময় ক্রিকেট খেলেছেন শোয়েব আখতার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চারশ’রও বেশি উইকেট আছে তার।