পাওনা বেতনের দাবিতে কারখানায় ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট

বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৬, ২০২০

জাহিন সিংহ, সাভার থেকে : সাভারে বেতনের দাবিতে একটি তৈরি পোশাক কারখানায় ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট করেছে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। এসময় পিটিয়ে আহত করা হয় প্রতিষ্ঠানটির ১৫ কর্মকর্তাকেও। এঘটনায় মামলা দায়েরের পর ৩ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার এঘটনায় আশুলিয়ার কাঠগড়া এলাকার লিলি এ্যাপারেলন্স গার্মেন্টস কারখানায় অনিদিষ্টকালের জন্য ছুটি ঘোষণা করা হয়।

পুলিশ জানায়, বুধবার ওই কারখানায় এক হাজার শ্রমিকের জন্য জুন মাসের বেতনের প্রস্ততি নেয়া হচ্ছিল। তবে ব্যাংক থেকে টাকা উঠাতে দেরি হওয়ায় ভাঙচুর শুরু করে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। এসময় ২০টি ল্যাপটপ, ৩৫টি কম্পিউটার, ১০টি ফায়ার ডোর, সুইং মেশিন ও ডাটা সারভার ভাঙচুর করে অফিস থেকে নগদ ১ লাখ টাকাসহ ২ লাখ পিচ শার্ট লুটপাট করা হয়। পিটিয়ে আহত করা হয় কারখানার জিএম মেজর (অব) জাহিদুর রহমান খানসহ ১৫ জন কর্মকর্তাকেও।

খবর পেয়ে প্রতিষ্ঠানটি পরিদর্শন করে শিল্প পুলিশ। পরে বৃহস্পতিবার থেকে কারখানাটি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

এঘটনায় কারখানার ফ্লোর ইনচার্জ শাহ আলমকে প্রধান আসামী করে ৩৫ জন শ্রমিকের নামসহ আরো ৫০০ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন কারখানাটির ডেপুটি ম্যানেজার ওমর আলী। পরে ফ্লোর ইনচার্জ শাহ আলম (৩৫),প্যাকার ম্যান রাকিব ফরাজী (২১) ও কোয়ালিটি ইনচার্জ রাসেল আকনকে (২৯) আটক গ্রেফতার করা হয়।

এব্যপারে প্রতিষ্ঠানটির জিএম মেজর (অব) জাহিদুর রহমান বলেন, কেউ শ্রমিকদের একেরপর এক উষ্কানি দিয়ে এমন ঘটনা ঘটিয়ে যা”েছ বলে ধারণা করা হ”েছ।

আশুলিয়া থানার ইন্সপেক্টর ফজলুর রহমান বলেন, সকল আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।