‘পাগল সেজেছিলেন সাহেদ’

বুধবার, জুলাই ১৫, ২০২০

ঢাকা: পাগলের বেশ ধারন করে সীমান্ত পার হওয়ার চেষ্টা করছিলেন রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ। তবে আজ বুধবার বহু প্রতারণা মামলার এই আসামি ও রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার হয়েছেন
সকাল ৯ টার দিকে র‌্যাবের হেলিকপ্টারে করে তাকে ঢাকায় আনা হয়।

এসময় র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান, গোঁফ কেটে চেহারা পালটিয়ে পাগলের বেশ নিয়ে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন সাহেদ।

এর আগে, বুধবার ভোররাতে সাতক্ষীরার দেবহাটা থানার সাকড়া বাজার এলাকার নবপতি ৩৩ বিজিবির পাশের সীমান্ত থেকে অস্ত্রসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সাহেদ সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করছিলো। আজ বুধবার ভোরে সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত এলাকা থেকে অবৈধ অস্ত্রসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ভোর ৫টা থেকে সাড়ে ৫টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। নদী পেরিয়ে সাহেদ ভারতে পালিয়ে যাবার চেষ্টায় গত কয়েকদিন ধরে সাতক্ষীরাতে অবস্থান করছিলেন।

র‌্যাব জানায়, যেন কেউ চিনতে না পারে সেজন্য বোরকা পরে নৌকায় করে নদী পার হওয়ার চেষ্টা করছিলেন সাহেদ। তবে র‌্যাবের নজরদারির কারণে এমন কিছু করতে পারেননি তিনি। গ্রেপ্তারের জিজ্ঞাসাবাদ করে আরো তথ্য পাওয়ার জন্য তাকে ঢাকায় নেয়া হয়েছে।

করোনা আক্রান্ত রোগীদের সাথে প্রতারণা সহ নানা অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের পর থেকেই পলাতক ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মো. সাহেদ। তাকে ধরতে গত কয়েকদিন ধরেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অনুসন্ধান চালায় র‌্যাব।

৬-ই জুলাই, সোমবার রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে হাসপাতাল দুটিকে সিলগালা করে দেয় র‌্যাব। এ ঘটনায় ১৭ জনকে আসামী করে করে একটি মামলা দায়ের করা হয়। বর্তমানে মামলাটি ঢাকা মহানগর উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।