লালমনিরহাটে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

রবিবার, জুলাই ১২, ২০২০

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত, লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটে বিয়ের দাবি নিয়ে প্রেমিকের বাড়ি গিয়ে হাজির হয়েছেন এক কলেজছাত্রী। এ ঘটনায় তাকে মেরে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে প্রেমিকের মা-বোন ও ভাবি।

ওই উপজেলার বড়বাড়ি ইউপির ১ নম্বর নওদাবাশ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। দুইদিন ধরে প্রেমিকের বাড়ির সামনেই অবস্থান করছেন ওই ছাত্রী।

শনিবার বিকেলে সরেজমিনে দেখা গেছে, বাড়ির মূল গেট ভেতর থেকে বন্ধ করে দিয়েছে প্রেমিকের পরিবারের লোকজন। গেটের বাইরে মাটিতে বসে আছেন প্রেমিকা।

স্থানীয়রা জানায়, নওদাবাশ গ্রামের শামসুল হকের ছেলে বদরুদ্দোজার সঙ্গে ওই কলেজছাত্রীর প্রেম ছিল। তারা সহপাঠী ও একই গ্রামের বাসিন্দা। শুক্রবার বিকেলে ওই ছাত্রী বদরুদ্দোজার বাড়িতে উঠলে বিষয়টি আরো পরিষ্কার হয়। ওইদিন সন্ধ্যায় তিনি বাড়িতে ঢুকতে চাইলে বদরুদ্দোজার মা, দুই বোন সাজেদা-মাজেদা ও ভাবি নূর আসমা তাকে মারধর করে বের করে দেয়। এছাড়া তারা বদরুদ্দোজাকে বাড়ি থেকে কৌশলে বের করে অন্যত্র পাঠিয়ে দেয়।

ওই কলেজছাত্রী জানান, বদরুদ্দোজার সঙ্গে তার ছয় বছরের প্রেম। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বদরুদ্দোজা তার সঙ্গে অনেকবার শারীরিক সম্পর্কেও জড়িয়েছেন। হঠাৎ তিনি জানতে পারেন বদরুদ্দোজাকে অন্য কোথাও বিয়ে করাচ্ছে পরিবার। এরপর শুক্রবার তার বাড়িতে ছুটে আসেন। বদরুদ্দোজার পরিবার তাকে মেরে তাড়িয়ে দিয়েছে। সারারাত তিনি বৃষ্টিতে ভিজেছেন।

বিয়ে না করা পর্যন্ত বদরুদ্দোজার বাড়ি থেকে যাবেন না, উল্টো বাড়ির সামনেই আত্মহত্যা করবেন বলেও হুমকি দিয়েছেন ওই ছাত্রী।

বড়বাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ইয়াসিন আলী মোল্লা জানান, বিষয়টি জানার পর ঘটনাস্থলে গিয়ে সমাধানের চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু কোনো পক্ষের সহযোগিতা পাওয়া যায়নি।

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি মাহফুজ আলম জানান, ওই কলেজছাত্রীর বাবা লিখিত অভিযোগ করেছেন। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।