‘আমি মরে গেলে তোরা এগুলো দেখিস’

শনিবার, জুলাই ১১, ২০২০

মানুষের জীবনে নানা সমস্যা আসে যায়। এনিয়ে বেচেঁ থাকতে হয়। কখনও বাচাঁর ইচ্ছেটা ক্ষীন হয়ে আসে তখন মানুষ আত্মহত্যা করে বসে। তবে আত্বহত্যাই সকল সমস্যার সমাধান নয়। এইতো জেনি বেবী কস্তা (৪০) নামে এক খ্রিষ্টান নারী আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। মৃত্যুর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নিজের টাইমলাইনে পোস্ট দিয়ে গিয়েছিলেন।

মেয়েটির নিকট আত্মীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ১৬ বছর আগে স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলে জেনি বেবী কস্তা আর বিয়ে করেনি। তিনি ঢাকায় একটি প্রাইভেট কোম্পানীতে চাকরি করতেন। করোনা পরিস্থিতির কারণে গত তিন মাস যাবৎ তিনি গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। বাড়িতে ফিরে তিনি হতাশায় ভুগছিলো এবং ফেসবুকে আত্মহত্যা করবে এমন ইঙ্গিত দিয়ে নানাবিধ পোস্ট দিয়ে আসছিলেন। সর্বশেষ শুক্রবার রাতে ফেসবুকে ২৬ টি নিজের ছবি পোস্ট দিয়ে স্ট্যাটাস দেয় ‘আমি মরে গেলে তোরা এগুলো দেখিস’।

বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক তৌহিদুল ইসলাম জানান, ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন জেনি বেবী কস্তা। ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর হাসপাতাল মর্গে তার লাশ পাঠানো হয়েছে।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে নিজ বাড়ির শয়ন কক্ষে দরজা ভেঙ্গে পুলিশ ওই নারীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। জেনি বেবী ওই গ্রামে মৃত আব্রাহাম কস্তার মেয়ে।