পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জে বন্দুকধারীদের হামলা, নিহত ৯

সোমবার, জুন ২৯, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বন্দরনগরী করাচি শহরে অবস্থিত পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জ ভবনে বন্দুকধারীরা হামলা চালিয়ে কমপক্ষে ৫ জনকে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় হামলাকারী চার বন্দুকধারী মারা গেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। খবর রয়টার্স, আলজাজিরা।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো পুলিশকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, বেশ কয়েকজন বন্দুকধারীর মৃত্যু হয়েছে এবং আক্রমণ অব্যাহত রয়েছে। কতজন হামলাকারী জড়িত বা তারা কারা তা এখনও পরিষ্কার নয়।

বন্দুকধারীরা গ্রেনেড ও বন্দুক নিয়ে ভবনে হামলা চালায় এবং চার সিকিউরিটি গার্ড একজন পুলিশ সাব ইন্সপেক্টরকে হত্যা করে। ভবনটি উচ্চ-সুরক্ষিত অঞ্চলে অবস্থিত এবং সেখানে অনেকগুলি বেসরকারী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ও রয়েছে।

করাচির পুলিশ প্রধান গোলাম নবী মেমন বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, “চারজন হামলাকারী নিহত হয়েছে, তারা একটি সিলভার কারোল্লা গাড়িতে এসেছিলো।”

পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জ এক বিবৃতিতে বলেছে যে পরিস্থিতি “এখনও উন্মোচিত” হচ্ছে। পরিচালক আবিদ আলী হাবিব বলেছেন, বন্দুকধারীরা গাড়ি পার্ক থেকে বেরিয়ে এসে “সবার উপর গুলি চালিয়েছিল”।

জিও টিভির খবরে বলা হয়েছে, ভবনের ভেতরের লোকদের ভবনের পিছনের দরজা থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

জিও টিভির সাথে কথা বলতে গিয়ে করাচির পুলিশ মহাপরিদর্শক বলেছেন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। হামলায় সমস্ত বন্দুকধারী নিহত হয়েছে। তিনি আরও বলেছেন, রেনজার্স ও পুলিশ ওই ভবনে প্রবেশ করে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে।

সিন্ধুর গভর্নর ইমরান ইসমাইল এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন যে পাকিস্তানের “সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে নিরলস যুদ্ধ”কে কলুষিত করতেই এ হামলা।

পাকিস্তানের পুলিশ প্রধান এক টুইটে নিরাপত্তা সংস্থাগুলিকে নির্দেশনা দিয়েছেন যাতে দোষীদের জীবিত ধরা হয় এবং তাদের পরিচালনাকারীদের অনুকরণীয় শাস্তি দেওয়া হয়। তিনি বলেন, “আমরা যেকোন মূল্যে সিন্ধুকে রক্ষা করব”।