হবিগঞ্জে বজ্রপাতে নিহত ৩

বৃহস্পতিবার, জুন ৪, ২০২০

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জে পৃথক স্থানে বজ্রপাতে তিন কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার জেলার বাহুবল ও আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় বিভিন্ন সময় পৃথক দুটি ঘটনায় তাদের মৃত্যু হয়।

তারা সবাই হাওরে মাছ ধরতে গিয়ে মারা গেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুইজন। নিহতরা হলেন, জেলার বাহুবল উপজেলার পুটিজুরী ইউনিয়নের নোয়াঐ গ্রামের দরদ মিয়ার ছেলে ওরখাইদ (১১) ও সাতকপান ইউনিয়নের মানিকা গ্রামের আব্দুস ছালামের ছেলে নছর উদ্দিন (১৭) এবং আজমিরীগঞ্জ উপজেলার নয়ানগর গ্রামের সমর আলীর ছেলে লিলু মিয়া (১৬)।

বাহুবল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কামরুজ্জামান জানা, উপজেলার নোয়াঐ গ্রামের ওরখাইদ তার বড় ভাই জুনাইদসহ আরো দুজনকে নিয়ে সকালে বাড়ির পাশের খালে মাছ মারতে যান। এ সময় বজ্রসহ বৃষ্টি শুরু হলে তিনি ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এ ঘটনায় তার ভাই জুনাইদ ও বন্ধু ওসমান আলী আহত হয়। তাদের বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে, একই উপজেলার সাতকাপন ইউনিয়নের জারিয়া বিলে মানিকা গ্রামের নছর উদ্দিন বাড়ির পার্শবর্তী হাওরে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

আজমিরীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম জানান- উপজেলার নয়াগড় গ্রামের লিলু মিয়া (১৬) সকালে মাছ ধরতে যান। এ সময় বজ্রপাত ঘটলে তিনিও ঘটনাস্থলেই মারা যান। অনেক বেলা হয়ে গেলেও সে বাড়িতে না আসায় পরিবারের লোকজন তার খুজে হাওরে যান। এক পর্যায়ে কালনী-কুশিয়ারা নদীর তীরে বাশঁ মহাল এলাকায় তার মরদেহ পান।