ভারত সীমান্তে পারমাণবিক অস্ত্রের সমাবেশ চীনের!

বৃহস্পতিবার, জুন ৪, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : লাদাখ সীমান্তে আবার উত্তেজনা। চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি ভারী অস্ত্র নিয়ে মহড়ার পাশাপাশি ট্রেনিং শুরু করেছে। তাদের কাছে রাসায়নিক এবং পারমাণবিক অস্ত্রও দেখা গেছে।

হংকং-ভিত্তিক প্রভাবশালী এই গণমাধ্যমটি জানিয়েছে, চীনের দেখাদেখি ভারতও লাদাখ শহরে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করেছে। দুই পক্ষের কত সেনা এখন পর্যন্ত সীমান্তে আছে তা কোনো দেশ নিশ্চিত করেনি।

নিজস্ব সূত্রের বরাত দিয়ে মর্নিং পোস্ট লিখেছে, চীনের সেনাবাহিনী বেশ কিছু উন্নত প্রযুক্তির অস্ত্র এবং যুদ্ধবিমান নিয়ে তিব্বতি মালভূমি অঞ্চলে মহড়া দিচ্ছে।

হংকং-ভিত্তিক মিলিটারি বিশেষজ্ঞ লিয়াং গুউলিয়াং পত্রিকাটিকে বলেছেন, চীন কমপক্ষে ৯টি সম্মিলিত ব্রিগেড মোতায়েন করেছে। তাদের কাছে পাহাড়ি অঞ্চলে অভিযান চালানোর বিশেষ অস্ত্রের পাশাপাশি পারমাণবিক-রাসায়নিক অস্ত্রও দেখা গেছে!

ভারত-চীন সীমান্তের তিনটি সেক্টরই এখন উত্তপ্ত। গত ৫ মে থেকে পশ্চিম ভাগে বা ওয়েস্টার্ন সেক্টরে লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সংঘাত চলছে। ‘ফিঙ্গার থ্রি’ ও ‘ফিঙ্গার ফোর’-এর মধ্যে রাস্তা তৈরির কাজে চীন প্রথম আপত্তি তোলে। একই সঙ্গে গালওয়ান ভ্যালির সঙ্গে সংযোগকারী রাস্তার কাজেও চীনের আপত্তি।

৫ মে রাতে পূর্ব লাদাখের প্যাঙ্গং লেকের কাছে চীন ভারতীয় সেনার নজরদারি বাহিনীকে বাধা দেয়। উপগ্রহ চিত্রে দেখা যাচ্ছে, নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে চীন প্রায় হাজার দশেক সেনা মোতায়েন করেছে। তিব্বতের গারি গুনশা ঘাঁটিতে চলছে নির্মাণকাজ। সেখানে হাজির বেশ কিছু যুদ্ধবিমানও। খবর সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের।