চীন খুব কম ও দেরিতে তথ্য দিচ্ছে: ডব্লিউএইচও

বৃহস্পতিবার, জুন ৪, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের উহানে প্রথম শনাক্ত হয় করোনা ভাইরাস। মরণঘাতি এই ভাইরাসটি নিয়ে এখন চরম ভুগছে বিশ্ব। দিশেহারা বিশ্বনেতারা একে অপরকে দুষছেন। ভাইরাসটি নিয়ে মুখোমুখি চীন ও যুক্তরাষ্ট্র।

চীনের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগের মধ্যেই এবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একদল কর্মকর্তা চীনের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ এনেছেন।

তারা মনে করছেন, চীনে তুমুল সংক্রমণ শুরুর পরপরই দেশের তিনটি সরকারি ল্যাব করোনা ভাইরাসের জেনেটিক ম্যাপ বা জেনোম তৈরি করে ফেলে। কিন্তু তা এক সপ্তাহের বেশি চেপে যায় দেশটির সরকার। এতেই অনেকটা ক্ষতি হয়ে গেছে। বেশকিছু লোকের সাক্ষাৎকার ও নথির ভিত্তিতে ওই দাবি করছে ডব্লিউএইচও।

সংক্রমণের কয়েকদিন পর গত ১১ জানুয়ারি চীনের ভাইরোলজিস্ট তাঁর ওয়েবসাইটে করোনা ভাইরাসের ওই জেনোম প্রকাশ করে দেন। তখনও পর্যন্ত বিষয়টি চেপে ছিল সরকারি ল্যাব। তারপরই তারা করোনাভাইরাসের জেনেটিক ম্যাপ প্রকাশ করে। শুধু তাই নয় রোগী ও চিকিৎসা সংক্রান্ত তথ্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে দিতে ২ সপ্তাহের বেশি দেরি করে চীন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার করোনা সংক্রান্ত টেকলিক্যাল হেড মারিয়া ভন কেরকোভ সংবাদসংস্থাকে জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাস সম্পর্কে খুব কম তথ্য নিয়ে আমরা এখন কাজ করছি। এই তথ্য নিয়ে কোনও পরিকল্পনা করা যায় না। এখন যেটা হয়েছে সেটি হল চীনের সরকারি টিভি কোনও খবর যাওয়ার ১৫ মিনিট আগে ওই তথ্য আমাদের হাতে আসছে।