ভার্চুয়াল একনেকে করোনা মোকাবিলায় ২টি সহ ১০ প্রকল্প অনুমোদন

মঙ্গলবার, জুন ২, ২০২০

অনলাইন ডেস্ক: দেশব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে নভেল করোনা ভাইরাস। এই মহামারির মধ্যেই প্রায় আড়াই মাসের বেশি সময় পরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দেশের ইতিহাসে প্রথম ভার্চুয়াল জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় নভেল করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ২টি প্রকল্পসহ ১৬ হাজার ২৭৬ কোটি ৩ লাখ টাকা ব্যয়ে মোট দশটি প্রকল্প অনুমোদন হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (০২ জুন) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

গণভবন থেকে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সভায় অংশগ্রহণ করেন।

একনেক সভায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুইটি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে একটি, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অধীনে একটি, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীনে দুইটি, কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনে দুইটি প্রকল্প এবং পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় ও স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীনে একটি করে প্রকল্প অনুমোদন পায়।

অনুমোদিত প্রকল্পসমূহ হলো: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দুইটি প্রকল্প যথাক্রমে ১ হাজার ১২৭ কোটি ৫২ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘CoVID – 19 Emergency Response and Pandemic Preparedness’ প্রকল্প ও ১ হাজার ৩৬৪ কোটি ৫৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘COVID – 19 Response Emergency Assistance ‘ প্রকল্প, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ৬ হাজার ৮৪৩ কোটি ২৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রকল্প-৩য় পর্যায়’ প্রকল্প, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ৩ হাজার ১২৮ কোটি ৪৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম-৭ম পর্যায়’ প্রকল্প, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের দু’টি প্রকল্প যথাক্রমে ১ হাজার ৫৮৭ কোটি ৯৯ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘শতভাগ পল্লী বিদ্যুতায়নের জন্য বিতরণ নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ ( রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগ) ( ১ম সংশোধিত)’ প্রকল্প এবং ১ হাজার ২৩৭ কোটি ৬৯ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘শতভাগ পল্লী বিদ্যুতায়নের জন্য বিতরণ নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ (ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ) (১ম সংশোধিত প্রকল্প)’ প্রকল্প।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের দু’টি প্রকল্প যথাক্রমে ৫৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ‘কৃষি যন্ত্রপাতি ও লাগসই প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন ব্যবস্থাকে অধিকতর লাভজনক করা প্রকল্প এবং ৬০ কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে মানসম্পন্ন মসলা বীজ উৎপাদন, প্রক্রিয়াজাতকরণ ও বিতরণ প্রকল্প। পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ৪৭৫ কোটি ২৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘সাতক্ষীরা জেলার পোল্ডার ১, ২, ৬-৮ এবং ৬-৮: ( এক্সটেনশন) এর নিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রকল্প এবং স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের ৩৯৪ কোটি ৭৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘দাশেরকান্দি পয় শোধনাগার (১ম সংশোধিত) প্রকল্প।

শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষ থেকে সভায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. এ. মান্নান, কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক, বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম, পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীবর্গ অংশগ্রহণ করেন।

সভায় মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, এসডিজি’র মুখ্য সমন্বয়ক, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সমূহের সচিব এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।