এসএসসি উত্তীর্ণ প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীর দায়িত্ব নিলেন ছাত্রলীগ নেতা সম্রাট

মঙ্গলবার, জুন ২, ২০২০

জাহিন সিংহ, সাভার থেকে : সাভারে কব্জিবিহীন হাত দিয়ে লিখে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ দরিদ্র পরিবারের মেধাবী ছাত্রীর কলেজের ভর্তি ও লেখাপড়ার দায়িত্ব নিয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি সাইদুর রহমান সম্রাট।

এবছর অনুষ্ঠিত এসএসসি পরীক্ষায় সাভারের আশুলিয়ার গাজীরচট হাজী মতিউর রহমান বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে অংশ নিয়েছিলেন দুই হাতের কব্জি হারানো এই শিক্ষার্থী। কব্জি ছাড়া হাতে লিখে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ- ৪.৭২ পেয়ে উত্তীর্ণ হন তিনি। পড়াশোনা করে ডাক্তার হওয়ার স্বপ্নে শারীরিক প্রতিবন্ধকতা ও দারিদ্রের যুদ্ধ করে যাচ্ছেন এই শিক্ষার্থী।

জান্নাতুল ফেরদৌস তার দুই হাতের কব্জি হারিয়েছে খুব ছোটবেলায়। দুর্ভাগ্যজনকভাবে নবীনগর এলাকার একটি ভাড়া বাসার ছাদে বিদ্যুৎ সঞ্চালক তারে জড়িয়ে দুর্ঘটনার শিকার হন। হারাতে হয় জীবন সংগ্রামের সব চেয়ে বড় হাতিয়ার দুই হাতের কব্জি। কিন্তু ডাক্তার হওয়ার নেশা তাকে দমাতে পারেনি। কব্জি ছাড়াই এসএসসিতে কৃতিত্বপূর্ণ অর্জন করেন।

এব্যাপারে জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, বাবা কৃষি কাজ করে কোন রকমে পরিবারের খরচ যোগান। মা আনেক কষ্ট করে এসএসসি পরীক্ষার ফরম ফিলাপের টাকা জোগাড় করেন। সবার সহযোগিতায় পড়াশোনা করে ডাক্তার হয়ে দেশের সেবা করার ইচ্ছে তার। সহযোগিতা পেলে সাভার ক্যান্টনমেন্ট কলেজে ভর্তি হওয়ার ইচ্ছার কথা জানান এই শিক্ষার্থী।

বিষয়টি জানতে পেরে এই শিক্ষার্থীর পাশে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভপাতি সাইদুল রহমান সম্রাট। তিনি বলেন, বিভিন্ন অনলাইন নিউজের মাধ্যমে জানার পর এসএসসি উন্নীর্ণ এই মেধাবী ছাত্রীর কলেজে লেখাপড়া ও ভর্তির দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। কলেজে লেখাপড়ার জন্য প্রয়োজনীয় আর্থিক সহায়তা দিবেন তিনি।

জান্নাতুল ফেরদৌস কুমিল্লা জেলার চাটখিল উপজেলার মানিকপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে। পরিবারের সাথে আশুলিয়ার পল্লীবিদ্যুৎ এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করেন এই শিক্ষার্থী।