ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মানবজমিনের সাংবাদিক গ্রেপ্তার

বুধবার, মে ২৭, ২০২০

গাইবান্ধা : ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ‘মানবজমিন’ পত্রিকার গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলা প্রতিনিধি সিরাজুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার রাতে উপজেলা সদরে তাঁর নিজ বাসা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ বুধবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাঁকে গাইবান্ধা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদুর রহমান জানান, গাইবান্ধা জেলা বাস মিনিবাস কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এবং ফাতেমা পরিবহনের মালিক আবদুস সোবাহানের দায়েরকৃত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।
করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ফাতেমা পরিবহন গাইবান্ধা থেকে ঢাকায় যাত্রী নিয়ে যায়। এ অপরাধে জেলার বিভিন্ন থানা–পুলিশ একাধিকবার এই পরিবহন আটক করে এবং মামলা দায়েরও করা হয়। এসব নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সাংবাদিক সিরাজুল লেখালেখি করেন। এ নিয়ে ফাতেমা পরিবহনের মালিক আবদুস সোবহান ১২ মে সিরাজুলের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পলাশবাড়ী থানায় মামলা করেন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতেও দেশে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার সংখ্যা বেড়েই চলেছে। মার্চ থেকে ১০ মে পর্যন্ত ৭১ দিনে এই আইনে মামলা হয়েছে ৪৩টি। এর আগে ২০১৯ সালে বছরজুড়ে এই সংখ্যা ছিল ৬৩।

করোনাকালে দায়ের হওয়া মামলায় পেশাজীবী হিসেবে সবচেয়ে বেশি গ্রেপ্তার হয়েছেন সাংবাদিক। এ সংখ্যা ১২ জন।