প্লেন চালুর পরেই ভারতে একের পর এক ফ্লাইট বাতিল

মঙ্গলবার, মে ২৬, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতে লকডাউনে দু’মাস বন্ধ থাকার পর আন্তঃরাজ্য বিমান পরিষেবা চালুর প্রথম দিনেই বড় ধাক্কায় বিমানবন্দরে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যম জানায়, সোমবার (২৫ মে) বিভিন্ন শহর থেকে দিল্লিগামী এবং দিল্লি থেকে বিভিন্ন শহরের যাওয়ার মোট ৮২টি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। অথচ যাত্রীদেরকে এ ব্যাপারে আগে থেকে কিছু জানানো হয়নি বলে অভিযোগ এসেছে। ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন বিমানবন্দরে অপেক্ষায় থাকা যাত্রীরা।

জানা যায়, সোমবার দিল্লি থেকে ১২৫টি প্লেন দেশের বিভিন্ন শহরের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার কথা ছিল। একই সঙ্গে দিল্লিতে নামার কথা ছিল ১১৮টি প্লেনের। কিন্তু একের পর পর এক ফ্লাইট বাতিল হয় একবারে শেষ মুহুর্তে। যাতে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন যাত্রীরা। দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্টের তিন নম্বর টার্মিনালে বিক্ষোভ করেন তারা। তাদের অভিযোগ, ফ্লাইট যে বাতিল করা হয়েছে তা শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তারা জানতে পারেননি। একই চিত্র ছিল মুম্বাইয়ের ছত্রপতি শিবাজি আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্টেও। সেখানে মোট ৫০টি প্লেন ওঠানামার কথা ছিল। যার জন্য ভোর থেকেই ভিড় ছিল যাত্রীদের। থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের পাশাপাশি তাদের মোবাইলে ‘আরোগ্য সেতু’ অ্যাপ রয়েছে কিনা তা-ও খতিয়ে দেখা হয়। কিন্তু এত কিছুর পরও ফ্লাইট বাতিল হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন যাত্রীরা।

এদিকে, ভারতের প্লেন সেবা চালুর দিনেই মুম্বাই এয়ারপোর্টের দুইজন কাস্টমস অফিসারের করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। এদিকে, বৃহস্পতিবার (২৮ মে) থেকে কলকাতা থেকে প্লেন পরিষেবা চালু হবে বলে জানা গেছে। একই সঙ্গে শিলিগুড়ির বাগডোগরা এয়ারপোর্টও একই দিন চালু হবে।