ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত ‘সঠিক’, বলছে ইরান

মঙ্গলবার, মে ২৬, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নিজেদের সেনাদের মস্তিষ্কে আঘাত ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্তকে ‘সঠিক’ বলে মন্তব্য করেছেন ভেনেজুয়েলায় নিযুক্ত ইরানের রাষ্ট্রদূত হুজ্জাত সুলতান।

গেল ৮ জানুয়ারি ইরাকের আইন আল-আসাদ বিমান ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

ওই হামলার পরপরই মার্কিন সরকার দাবি করেছিল, যুক্তরাষ্ট্রের কোনও সেনা হতাহত হয়নি। কিন্তু পরবর্তীতে কয়েক দফায় স্বীকার করে, ক্ষেপণাস্ত্র হামলার কারণে বহু মার্কিন সেনা মস্তিষ্কে আঘাত পেয়েছে। যাকে যুক্তরাষ্ট্র ট্রমাটিক ব্রেইন ইনজুরি হিসেবে অভিহিত করেছিল।

সেই ঘটনাকে ইঙ্গিত করে হুজ্জাত সুলতান বলেন, ‘আল্লাহর রহমতে তারা (ট্রাম্প) বুঝতে পেরেছেন এবং যৌক্তিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আশা করি ভবিষ্যতেও তাদের পক্ষ থেকে এ ধরনের যৌক্তিক ও সম্মানজনক সিদ্ধান্তই আসবে।’

ইরানের তেলবাহী জাহাজ ভেনেজুয়েলার সমুদ্রসীমায় প্রবেশ করা নিয়ে ইরান-ভেনেজুয়েলার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের বিরোধ চলে আসছে। ভেনেজুয়েলা তেলসমৃদ্ধ দেশ হলেও সাম্প্রতিক সময়ে দেশটির তেল শোধনাগারগুলো অচল হয়ে পড়ার কারণে পরিশোধিত তেলের সংকট দেখা দেয় দেশটিতে। এ অবস্থায় দু’দেশের ওপর মার্কিন সরকারের একতরফা নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ইরানের ৫টি তেল ট্যাংকার ভেনেজুয়েলার জন্য পরিশোধিত তেল ও তেলজাত পণ্য নিয়ে যাত্রা করে।

ভেনেজুয়েলাকে ইরানের সহায়তার খবর পাওয়ার পর মার্কিন সরকার গত ১৪ মে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি দেয়।

ইরানও যুক্তরাষ্ট্রকে পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলে দিয়েছে, মার্কিন সেনারা যদি ইরানি তেল ট্যাংকারে আঘাত হানে তবে ওয়াশিংটনকে একই ধরনের পাল্টা আঘাত উপহার দেবে তেহরান।