ভেনিজুয়েলার জলসীমায় প্রবেশ করল প্রথম ইরানি তেল ট্যাংকার

রবিবার, মে ২৪, ২০২০

অনলাইন ডেস্ক: সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ইরান থেকে পাঠানো পাঁচটি তেল ট্যাংকারের প্রথমটি ভেনিজুয়েলার পানিসীমায় প্রবেশ করেছে।

সাগরে জাহাজ চলাচল পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা মেরিনট্রাফিক-এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, ইরানি পতাকাবাহী তেল ট্যাংকার ‘ফরচুন’ তেহরানের স্থানীয় সময় রবিবার সকালে ভেনিজুয়েলার বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের পানিসীমায় প্রবেশ করেছে।

ইরানের বার্তা সংস্থা ফার্সনিউজ জানিয়েছে, ভেনিজুয়েলার পানিসীমায় প্রবেশ করার পর দেশটির নৌবাহিনী ও বিমান বাহিনীর সেনারা ইরানি তেল ট্যাংকারকে স্কর্ট করে ভূভাগের দিকে নিয়ে যায়।

রাশিয়ার নিউজ চ্যানেল রাশাটুডে এক খবরে জানিয়েছে, ‘অ্যাডাম জোসেফ’ নামের আমেরিকার একটি যুদ্ধজাহাজ ইরানি তেল ট্যাংকারটিকে অনুসরণ করছিল। কিন্তু এটি ভেনিজুয়েলার পানিসীমায় প্রবেশ করার পর মার্কিন যুদ্ধজাহাজটি ফিরে গেছে।

রাশিয়াটুডে জানিয়েছে, ফরচুনের পেছন পেছন ইরানের অপর চারটি তেল ট্যাংকার ‘ক্ল্যাভেল’, ‘ফরেস্ট’, ‘ফ্যাকসন’ ও ‘পতুনিয়া’ ভেনিজুয়েলার পানিসীমার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

এর আগে, জাতিসংঘে নিযুক্ত ভেনিজুয়েলার স্থায়ী প্রতিনিধি স্যামুয়েল মুনকাডা জানান, আমেরিকা ইরানি তেল ট্যাংকারের বিরুদ্ধে বলপ্রয়োগের হুমকি দিয়েছে ভেনিজুয়েলা তেলসমৃদ্ধ দেশ হলেও সাম্প্রতিক সময়ে দেশটির তেল শোধানাগারগুলো অচল হয়ে পড়ার কারণে পরিশোধিত তেলের অভাবে পড়ে দেশটি। এ অবস্থায় সম্প্রতি দু’দেশের ওপর আমেরিকার অবৈধ ও একতরফা নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ইরানের পাঁচটি তেল ট্যাংকার ভেনিজুয়েলার জন্য পরিশোধিত তেল ও তেলজাত পণ্য নিয়ে দেশটির উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে।

এ খবর পাওয়ার পর মার্কিন সরকার গত ১৪ মে হুমকি দেয়, ইরানের তেল ভেনিজুয়েলায় সরবরাহের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা ভাবছে ওয়াশিংটন। পরবর্তীতে জাতিসংঘে নিযুক্ত ভেনিজুয়েলার স্থায়ী প্রতিনিধি জানান, আমেরিকা ইরানি তেল ট্যাংকারকে বলপূর্বক বাধা দেয়ার হুমকি দিয়েছে। কোনো কোনো পশ্চিমা গণমাধ্যমে এ খবরও প্রকাশিত হয়, ইরানি তেল ট্যাংকারকে বাধা দিতে আমেরিকা ক্যারিবীয় সাগরে নৌবাহিনী পাঠিয়েছে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে গত কয়েকদিনে ইরানের প্রেসিডেন্ট, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সেনাপ্রধান আমেরিকাকে কড়া হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, মার্কিন সন্ত্রাসী সেনাবাহিনী দ্বারা ইরানি তেল ট্যাংকার আক্রান্ত হলে তেহরান আমেরিকার বিরুদ্ধে একই ধরনের পাল্টা ব্যবস্থা নেবে। ভেনিজুয়েলার সেনাবাহিনীও দু’দিন আগে সাগর উপকূলে ক্ষেপণাস্ত্রের মহড়া চালায়।