যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু, আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ৩ লাখ

রবিবার, এপ্রিল ৫, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনা ভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে দিনদিন পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। ক্রমাগত বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ১ হাজার ৩৩১ জন। যা এ যাবৎ একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মারা গেছে ৮ হাজার ৪৫২ জন। এর মধ্যে শুধু নিউইয়র্কে মারা গেছে ৩ হাজার ৫৬৫ জন।

আক্রান্তের সংখ্যায় দেশটি ছাড়িয়ে গেছে সবাইকেই। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ১১ হাজার ৩৫৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৩৪ হাজার ১৯৬ জন। যা একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১৪ হাজার ৮২৫ জন।

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে ২ লাখ ৮৮ হাজার ৮০ জন আক্রান্ত রয়েছে। তাদের মধ্যে ২ লাখ ৭৯ হাজার ৮৭৪ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। বাকি ৮ হাজার ২০৬ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিউতে রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা নিউইয়র্কে। সেখানে এ পর্যন্ত মারা গেছে ৩ হাজার ৫৬৫ জন এবং আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ১৪ হাজার ৭৭৫ জন। এছাড়া নগরীতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথমবারের মতো ১৮ বছর বয়সের নিচে একজনের মৃত্যু হয়েছে। তার শরীরে অন্য আরও রোগ ছিল।

আমেরিকার শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্টনি ফসি আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, দেশে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা এক লাখ বা তারও বেশি হতে পারে। এরপর প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও একই কথা বলেছেন। এদিকে চীন থেকে জরুরি মেডিকেল সরঞ্জাম পৌঁছেছে যুক্তরাষ্ট্র্রে। খবর বিবিসি, এএফপি।

উল্লেখ্য, বিশ্বজুড়ে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৮০১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৪ হাজার ৬৯১ জন।

এছাড়া বিশ্বজুড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৮৪ হাজার ৮০০ জন। যা একদিনে আক্রান্তের সংখ্যায় সর্বোচ্চ। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত হয়েছে ১২ লাখ ১ হাজার ৪৭৬ জন। এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৪৬ হাজার ২৫৮ জন সুস্থ হয়েছে।

সবমিলিয়ে, বর্তমানে ৮ লাখ ৯০ হাজার ৩১৮ জন আক্রান্ত রয়েছে। তাদের মধ্যে ৮ লাখ ৪৮ হাজার ৩০ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। আর ৪২ হাজার ২৮৮ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিউতে রয়েছে।

ভাইরাসটি চীন থেকে ছড়ালেও বর্তমানে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩ লাখ ১১ হাজার ৩৫৭ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৪৫২ জনের। ইতালিতে ১ লাখ ২৪ হাজার ৬৩২ জন আক্রান্ত, বিপরীতে মারা গেছে ১৫ হাজার ৩৬২ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে ইতালিতে এবং আক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রে।

এছাড়া স্পেনে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ২৬ হাজার ১৬৮ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর ১১ হাজার ৯৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। জার্মানিতে ৯৬ হাজার ৯২ জন আক্রান্ত, মৃত্যু ১ হাজার ৪৪৪। চীনে আক্রান্ত ৮১ হাজার ৬৬৯, মৃত্যু ৩ হাজার ৩২৯। ফ্রান্সে আক্রান্ত ৮৯ হাজার ৯৫৩, মৃত্যু ৭ হাজার ৫৬০। ইরানে আক্রান্ত ৫৫ হাজার ৭৪৩, মৃত্যু ৩ হাজার ৪৫২। যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ৪১ হাজার ৯০৩, মৃত্যু ৪ হাজার ৩১৩ জন।

এছাড়া ভারতে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ৫৮৮ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর প্রাণ গেছে ৯৯ জনের। পাকিস্তানে এ পর্যন্ত ২ হাজার ৮১৮ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং ৪১ জন মারা গেছে। বাংলাদেশে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ৭০ জন আক্রান্ত হয়েছে বিপরীতে প্রাণ গেছে ৮ জনের।

এ রোগের কোনো উপসর্গ যেমন জ্বর, গলা ব্যথা, শুকনো কাশি, শ্বাসকষ্ট, শ্বাসকষ্টের সঙ্গে কাশি দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। জনবহুল স্থানে চলাফেরার সময় মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। বাড়িঘর পরিষ্কার রাখতে হবে। বাইরে থেকে ঘরে ফিরে এবং খাবার আগে সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে। খাবার ভালোভাবে সিদ্ধ করে খেতে হবে।