দুঃসময়ে ত্রাতার ভূমিকায় হাজির হলেন সালমান

শনিবার, এপ্রিল ৪, ২০২০

বিনোদন ডেস্ক : যারা নিয়মিত সালমানের ছবি দেখেন তারা জানেন, ঈদের চাঁদ হাসে সালমানের ছবি দেখে। প্রতি বছর ঈদে সালমানের ছবি মুক্তি মানেই ব্লকবাস্টার হিট। চলতি বছর ঈদে সালমানের ‘রাধে: ইওর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’ সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার কথা। তবে করোনাভাইরাসের কারণে অনিশ্চয়তায় আছে সিনেমাটি।

২৬ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত ‘রাধে’র শুটিং হওয়ার কথা ছিল। সেই অনুযায়ী তৈরিও ছিল সবকিছু। কিন্তু করোনার কারণে কাজ করতে পারলেন না সালমান খান-সহ ‘রাধে’র গোটা টিম। ফলে বিনা রোজগারে আয়ের উপায় কী তাই ভেবে ভেঙে পড়েন টিম রাধের দৈনিক কাজের বিভিন্ন লোকজন। লকডাউনের বাজারে দৈনিক রোজগেরেদের যাতে কোনো সমস্যা না হয়, তার জন্য যেন ত্রাতার ভূমিকায় হাজির হলেন সালমান। শুটিং বন্ধ থাকা সত্ত্বেও, ২৬ মার্চ থেকে ২ এপ্রিলের রোজের টাকা টিম রাধের প্রত্যেক সদস্যের অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেন সালমান খান।

একটি সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে সালমানের মেকআপ আর্টিস্ট জানান, শ্যুটিং বন্ধ থাকা সত্ত্বেও, নির্দিষ্ট সময়ে তাদের অ্যাকাউন্টে ঢুকে গিয়েছে টাকা। এত কঠিন সময়েও সালমান খান তাদের সঙ্গে রয়েছেন। টিম রাধের প্রত্যেক সদস্যের সুবিধা, অসুবিধার কথা মাথায় রাখছেন বলে জানান ওই মেকআপ আর্টিস্ট।

ছবিতে সালমানের সঙ্গে রয়েছেন দিশা পাটানি, জ্যাকি শ্রফ, রণদীপ হুডা। ছবির পরিচালক প্রভুদেবা। এই নিয়ে পরপর তিনটি ছবিতে ভাইজানের সঙ্গে কাজ করলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, করোনার জেরে যতদিন লকডাউন চলবে, ততদিন মুম্বাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ২৫ হাজার শ্রমিক পরিবারের দায়িত্ব তিনি নেন। এমনকী, তার গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের সমস্ত কর্মী এবং নিরাপত্তা রক্ষীদেরও খাবারের দায়িত্ব নেন সালমান খান। সূত্র: জি-নিউজ