নতুন গবেষণায় ভয়ঙ্কর তথ্য, করোনাভাইরাস যেতে পারে ২৭ ফুট

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২, ২০২০

নিউজ ডেস্ক : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে মানুষের থেকে কমপক্ষে ছয় ফুট দূরত্ব বজায় রাখার যে নির্দেশনা রয়েছে, সেটি হয়তো যথেষ্ট নয়। কারণ, নতুন এক গবেষণায় জানা গেছে, প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি অন্তত ২৭ ফুট অতিক্রম করতে পারে আর বাতাসে ঘুরতে পারে কয়েক ঘণ্টা।

সম্প্রতি আমেরিকান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের জার্নালে প্রকাশিত যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) সহযোগী অধ্যাপক লাইদিয়া বোরোইবার এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

দীর্ঘদিন ধরে হাঁচি-কাশির গতিপ্রকৃতি নিয়ে গবেষণা করা এ বিজ্ঞানী জানান, করোনা মোকাবিলায় বর্তমানে সামাজিক দূরত্বের যে নির্দেশনা রয়েছে তা অনেক পুরনো। ১৯৩০-এর দশকের গবেষণালব্ধ তথ্যের ভিত্তিতে এসব নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

লাইদিয়া তার গবেষণায় দেখেছেন, করোনার জীবাণুযুক্ত সব আকারের ড্রপলেটই অন্তত ২৩ থেকে ২৭ ফুট অতিক্রম করতে পারে। সেক্ষেত্রে এটি তার যাত্রাপথে সংস্পর্শে আসা যেকোনও বস্তুকেই দূষিত করে তুলতে পারে। এমনকি এসব জীবাণু বাতাসে কয়েক ঘণ্টা ঘুরে বেড়াতে সক্ষম।

উদারণস্বরূপ তিনি জানান, চলতি বছর চীনের একদল গবেষক করোনা আক্রান্ত রোগীর রুম ও হাসপাতালের ভেন্টিলেটরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি খুঁজে পেয়েছেন।

একারণে এ মার্কিন গবেষকের বিশ্বাস, করোনা নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন সংস্থার বর্তমান নির্দেশনাগুলো খুবই সাধারণ মানের এবং এটি মহামারি এড়াতে যথেষ্ট নয়।

এর আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছিল, করোনার হাত থেকে বাঁচতে তিন ফুট দূরত্ব বজায় রাখাই যথেষ্ট। তবে, তারাও লাইদিয়ার এ গবেষণাকে স্বাগত জানিয়েছে।

সংবাদমাধ্যমে এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, ডব্লিউএইচও এই গুরুতর বিষয় সম্পর্কে উদীয়মান সব তথ্য-প্রমাণ সতর্কতার সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে। এবং আরও তথ্য পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তারা বৈজ্ঞানিক বিবরণীটি আপডেট করবে। সূত্র: নিউ ইয়র্ক পোস্ট