করোনায় মেনে চলুন চার কাজ

শনিবার, মার্চ ২৮, ২০২০

স্বাস্থ্য ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের দাপটে ঘরবন্দি সারাদেশ। সংক্রমণ এড়াতে লক ডাউন অবস্থা চলবে এপ্রিলের ৪ তারিখ পর্যন্ত। এই সময়টায় যথাসম্ভব বাইরে না বেরোনোর নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। কিন্তু বাড়িতে থাকলেও আমাদের দরকার যথাসম্ভব সচেতনতা বজায় রাখা। যেহেতু ভাইরাসটি যে কোনও সারফেসে বেশ কয়েক ঘণ্টা বেঁচে থাকতে পারে, তাই বাড়ির ভিতরেও বেশ কিছু সচেতনতা মেনে চলতে হবে আমাদের। রইল সেরকমই কিছু গাইডলাইন।

চোখে মুখে হাত দেবেন না
করোনা ভাইরাস আক্রমণ করে শ্বাসযন্ত্রকে। ফলে সারাক্ষণ হাত স্যানিটাইজ করে রাখা খুব দরকার। বাড়ির কাজ, যেমন ঘর মোছা, বাসন মাজা হয়ে গেলে খুব ভালো করে সাবান-জল বা হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলুন। মুখে, নাকে, চোখে হাত দেবেন না, তাতে সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি।

নিয়মিত হাত ধুয়ে ফেলুন
অ্যালকোহল-বেসড হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত ধুয়ে ফেললে সব ভাইরাস মরে যাবে। হ্যান্ডওয়াশ না থাকলে স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে পারেন। তবে মাত্রাতিরিক্ত করবেন না, তাতে হাতের ত্বক শুকনো হয়ে ফেটে গেলে আর এক বিপত্তি হবে। হাত ধোয়ার পরে ময়শ্চারাইজার অবশ্যই মেখে নিন।

মাছ-মাংস খুব ভালো করে রান্না করুন
আন্ডারকুকড ফুড এড়িয়ে চলাই ভালো। রান্না করার আগে মাছ-মাংস ভালোভাবে ধুয়ে নিন। সময় নিয়ে সেদ্ধ করুন বা ভাজুন। দুধ ভালো করে ফুটিয়ে নিতে ভুলবেন না। যাঁরা ডিম খান, এই সময়টা ওমলেট বা ফুলবয়েল করে খাওয়াই ভালো।

স্বাস্থ্যকর অভ্যেস গড়ে তুলুন
যেহেতু এই সময়টা মরশুম বদলের সময়, তাই সর্দিকাশি হওয়া স্বাভাবিক। সর্দিকাশি মানেই করোনা সংক্রমণ নয়। কিন্তু যে কোনওরকম সর্দিকাশি হলেও একটা প্রাথমিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। হাঁচি বা কাশির সময় টিস্যু বা রুমাল দিয়ে মুখ পুরো ঢেকে নিন। টিস্যু ব্যবহার করলে সঙ্গে সঙ্গে সেটি নির্দিষ্ট জায়গায় ফেলে দেবেন। নিজের হাতও স্যানিটাইজ করুন। তাতে রোগজীবাণু ছড়াতে পারবে না। মাস্ক পরলে একই মাস্ক দিনের পর দিন পরবেন না, তাতে সংক্রমণের আশঙ্কা থাকে। নির্দিষ্ট সময় অন্তর মাস্ক বদলে ফেলুন।