অলৌকিক এই মন্দির দিনে মাত্র দু’বার সমুদ্রে ভেসে উঠে

সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২০

ঢাকা : চোখের সামনে বিস্তৃত এক জলরাশি। তারই মাঝে চোখের পলকে হঠাৎই ভেসে উঠলো একটি বড় মন্দির। এমন দৃশ্য কল্পনা করতে যেন গায়ে কাটা দেয়! সত্যিই এমন এক অলৌকিক দৃশ্যের দেখা মেলে আরব সাগরে।

বলছি, এক শিব মন্দিরের কথা। দিনে মাত্র কয়েক ঘণ্টার জন্য সমূদ্রে ভেসে ওঠে মন্দিরটি। আবার একসময় পানিতেও অদৃশ্য হয়ে যায়। মন্দিরটির নাম স্তম্ভেশ্বর মহাদেব মন্দির। এই মন্দিরটি গুজরাট রাজ্যের ভোদোদরা শহর থেকে ৬০ কিলোমিটার দূরে কাবি কাম্বোই গ্রামে অবস্থিত। এই মন্দিরটির বয়স প্রায় দেড়শ বছর। এটি আরব সাগরের খাম্বট উপসাগরের তীরে অবস্থিত।

এই মন্দিরটি দিনে দুইবার অদৃশ্য হয়ে যায়। কারণ এই মন্দিরটি দিনের বেশিরভাগ সময়ই সমুদ্রের জলে নিমজ্জিত থাকে। দকেন এমনটি ঘটে জানেন কি? সমুদ্রে জোয়ার এলে মন্দিরটি ডুবে যায়। আবার ভাটা পড়লে মন্দিরটি পানির মাঝে দৃষ্টিগোচর হয়। জানা গেছে, দিনে দুইবার জোয়ারে সময় মন্দিরটি অদৃশ্য হয়ে যায়। যখন আবার মন্দিরটি দৃশ্যমান হয় ভক্তরা শিব ঠাকুরকে দর্শন ও পূজা দিতে সেখানে যান।

অনেকেই বলে থাকেন, এই মন্দির নির্মাণ করেছিলেন পঞ্চপাণ্ডবেরা। নিজেদের পাপ মোচন করতেই নাকি তারা এই মন্দিরটি নির্মাণ করেছিলেন। এই মন্দিরের উচ্চতা ২০ ফুট। যা বিশেষ সময় ছাড়া সবসময়ই থাকে সাগরের নীচে। সময় হলে তবেই দেখা মেলে এই মন্দিরের। এই দৃশ্য দেখার জন্যই বহু দর্শনার্থী ভিড় করেন সমুদ্র তটে। মনের আশা পূরণে এই মন্দিরে ভিড় জমান বহু পুণ্যার্থী। সূত্র: নিউজডিফাইভ