বাবাকে অশ্রদ্ধা করায় বিরক্ত সোনাম!

রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০

বিনোদন ডেস্ক : শেখর কাপুরের ১৯৮৭ সালের হিট ছবি ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’র রিমেক করতে চলেছেন নির্মাতারা। পরিচালক আলি আব্বাস জাফর রিমেকের কান্ডারী। আর এই খবরেই হতাশ সোনাম কাপুর। বলিউডের কালজয়ী ছবিগুলির মধ্যে অন্যতম অনিল কাপুরের ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’। লম্বা ইনস্টাগ্রাম পোস্টে, সোনাম কাপুর ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’র নির্মাতাদের বিরূদ্ধে তোপ দাগলেন সোনাম কাপুর। তার বাবা অনিল কাপুর ও পরিচালক শেখর কাপুরকে অশ্রদ্ধা করার জন্য বিরক্ত তিনি। তার বিখ্যাত ছবির রিমেক হতে চলেছে অথচ তিনি জানেনই না।

ইনস্টাগ্রামে সোনাম কাপুর লিখেছেন, “বহু মানুষ মিস্টার ইন্ডিয়া’র রিমেক নিয়ে প্রশ্ন করছেন। কিন্তু সত্যি কথা বলতে, আমার বাবা জানেনও না সে ছবিটা রিমেক হচ্ছে। আলি আব্বাস জাফর টুইট করার পর আমরা তা জানতে পারি। বিষয়টা সত্যিই অপমানজনক ও হতাশার, যদি খবরটা সত্যি হয়, তাহলে কেউ একবার বাবা কিংবা শেখর কাকুকে জিজ্ঞেস করার প্রয়োজন মনে করল না- এই দু’জনেরই ছবিটা তৈরি করতে সব থেকে বেশি যোগদান রয়েছে।”

কেন সোনাম, আলি জাফরের মিস্টার ইন্ডিয়া’র ট্রিলজি বানানো নিয়ে বিরক্ত, সেই কারণ পরিস্কার করে বলতে গিয়ে ‘খুবসুরাত’ অভিনেত্রী লেখেন, “এটা দুঃখের কারণ ছবিটা মন থেকে ও কষ্ট করে তৈরি করা। ছবিটার সঙ্গে বাবার আবেগ জড়িয়ে রয়েছে। ঘোষণা করা বা ছবিটা তৈরি হচ্ছে এর থেকেও বড় বিষয় ছবিটা বাবার কেরিয়ারের মাইলস্টোন। আশা করা উচিত যে কারও কাজের সম্মান ও অবদান রাখাটা জরুরি, ঠিক যতটা বক্স অফিস প্রয়োজনীয়।”

গত সপ্তাহে পরিচালক আলি আব্বাস জাফর টুইটারে লিখেছিলেন, “মিস্টার ইন্ডিয়ার মতো কালজয়ী ছবির ট্রিলজি বানানোর জন্য জি স্টুডিয়োসের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে গর্বিত। সবার এত প্রিয় ও বিখ্যাত চরিত্রকে নিয়ে কাজ করারটাও বড় দায়িত্বের। চিত্রনাট্য নিয়ে কাজ চলছে। এখনও অভিনেতা ঠিক হয়নি। স্ক্রিপ্টের প্রথম ড্রাফট হলে কাস্টিং শুরু হবে।”

রিয়া কাপুর ও হর্ষবর্ধন কাপুরও, সোনমের কথার সঙ্গে সহমত। সোনমের পোস্ট শেয়ার করে রিয়া লেখেন, “কিছু জিনিস টাকা-পয়সা, লক্ষ্য, পেপারওয়ার্ক, সেমেন্টিকসের ঊর্দ্ধে। কিছু জিনিস আগলে রাখা প্রয়োজন।”

কিছুদিন আগে শেখর কাপুর মিস্টার ইন্ডিয়া টু-এর ঘোষনার টুইটে লেখেন, “অবাক! কেউ একবার জিজ্ঞেস করল না এমনকী জানালো না। মনে হচ্ছে বিশার সপ্তাহান্তের জন্য মিস্টার ইন্ডিয়া নামটা ব্যবহার করা হচ্ছে। কারণ আসল নির্মাতাদের জিজ্ঞেস না করে চরিত্র/গল্প কিছু মূল কাহিনি থেকে নেয়া যায় না।” সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস