সপ্তাহজুড়ে ব্লক মার্কেটে ১১৩ কোটি টাকার লেনদেন

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০

ঢাকা : সমাপ্ত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে মোট ৪৮টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। কোম্পানিগুলোর ৩ কোটি ০৯ লাখ ৬৩ হাজার ৬৫৭টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার আর্থিক মূল্য ১১৩ কোটি ৩৮ লাখ ৭৪ হাজার টাকা।

ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ৩৮ কোটি ৭৮ লাখ ৫৭ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে বিকন ফার্মার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৬ কোটি ১১ লাখ টাকার ইসলামী ব্যাংকের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ১১ কোটি ৮ লাখ ৮০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে সামিট পাওয়ারের।

এছাড়া ব্লকে লেনদেন করা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে এডিএন টেলিকমের ১৬ লাখ ৭৪ হাজার টাকার, ব্যাংক এশিয়ার ৩ কোটি ৯০ লাখ ২৮ হাজার টাকার, ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ১৫ লাখ ৪১ হাজার টাকার, ফাইন ফুডসের ১ কোটি ১৮ লাখ ২৯ হাজার টাকার, ইন্দো-বাংলা ফার্মার ২ কোটি ৫৫ লাখ ৬০ হাজার টাকার, যমুনা ব্যাংকের ৩ কোটি ৭৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার, এমএল ডাইংয়ের ১ কোটি ৫২ লাখ ৩৯ হাজার টাকার, ওয়াইম্যাক্সের ৪২ লাখ ২৫ হাজার টাকার, ওরিয়ন ইনফিউশনের ৫ লাখ ১ হাজার টাকার, রূপালী ইন্স্যুরেন্সের ২১ লাখ ৯০ হাজার টাকার, এসকে ট্রিমসের ২ কোটি ২৪ লাখ ২১ হাজার টাকার, ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের ৫ লাখ ৬৩ হাজার টাকার

বৃটিশ আমেরিকান ট্যোবাকোর ১২ লাখ ৪৮ হাজার টাকার, ব্র্যাক ব্যাংকের ৪৫ লাখ ৯৩ হাজার টাকার, ড্যাফোডিলের ১ কোটি ৪ লাখ ৫২ হাজার টাকার, আইসিবি এম্প্লয়েজ প্রভিডেন্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড ওয়ান : স্কিম ওয়ানের ৪২ লাখ ৮৫ হাজার টাকার, ইনটেকের ১৯ লাখ ৭২ হাজার টাকার, লাফার্জহোলসিমের ৮০ লাখ ৩২ হাজার টাকার, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ১৫ হাজার টাকার, নর্দার্ণ জুটের ৯৮ লাখ ৬০ হাজার টাকার, সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের ৬৯ লাখ ৮৭ হাজার টাকার, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকের ১ কোটি ৭৪ লাখ ৭২ হাজার টাকার, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের ৭ লাখ ১২ হাজার টাকার, আইসিবি এএমসিএল ফার্স্ট অগ্রণী ব্যাংক মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৫ লাখ ৪ হাজার টাকার, কোহিনূর কেমিক্যালের ৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকার, পিপলস ইন্স্যুরেন্সের ৬৯ লাখ ৩৯ হাজার টাকার, প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ১ কোটি ৯৪ লাখ ২৩ হাজার টাকার, স্কয়ার টেক্সটাইলের ৬ লাখ ৪৬ হাজার টাকার, স্কয়ার ফার্মার ৭ কোটি ২৫ লাখ ৩০ হাজার টাকার

বিবিএস কেবলসের ৩৩ লাখ ৯৫ হাজার টাকার, ফরচুন সুজের ১৯ লাখ ২৪ হাজার টাকার, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ২৯ লাখ ৯০ হাজার টাকার, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্সের ৫৮ লাখ ৫৪ হাজার টাকার, ইউনিক হোটেলের ৮২ লাখ ৩৭ হাজার টাকার, ইউনাইটেড পাওয়ারের ৭৭ লাখ ৯৮ হাজার টাকার, ওয়াটা কেমিক্যালের ৫ লাখ ৬৯ হাজার টাকার, আমরা টেকনোলজিসের ৫ লাখ ৭৮ হাজার টাকার, আমান ফিডের ৪৩ লাখ ৬৬ হাজার টাকার, জিকিউ বলপেনের ৭ লাখ ৩২ হাজার টাকার, খুলনা পাওয়ারের ৭ লাখ ৮৬ হাজার টাকার, লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকার, লিন্ডেবিডির ৭৮ লাখ ২৭ হাজার টাকার, অলিম্পিকের ৫ কোটি ৮৬ লাখ ৮০ হাজার টাকার, সমতা লেদারের ১৬ লাখ ২৬ হাজার টাকার এবং সিলকো ফার্মার ৮ লাখ ২২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।