বিসিএলে দল পেয়েছেন আশরাফুল, অনীহা সাব্বিরে

মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৮, ২০২০

স্পোর্টস ডেস্ক : ঘরোয়া লংগার ভার্সন ক্রিকেটের ফ্র্যাঞ্চাইজি আসর বিসিএল শুরু হবে শুক্রবার থেকে। আসরে মোহাম্মদ আশরাফুল দল পেয়েছেন। জাতীয় দলের একসময়কার তারকা এ ব্যাটসম্যান খেলবেন ইস্ট জোনের হয়ে। তবে মারকুটে ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান রুম্মনকে নিতে আগ্রহ দেখায়নি কোনো দল।

জাতীয় লিগের ফর্ম বিবেচনা করেই বিসিএলের দল সাজানো হয়। যেখানে গত আসরে বরিশালের হয়ে ১৫০ রানের অপরাজিত একটি ইনিংস খেলেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। অন্যদিকে সাব্বিরের জাতীয় লিগের পারফরম্যান্স ছিল ভুলে যাওয়ার মতো।

অন্যদিকে সাব্বির রহমান জাতীয় দলে জায়গা হারিয়েছেন আগেই। ঘরোয়া ক্রিকেটেও একই পরিণতির পথে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট লিগ বিসিএলের ড্রাফটে কোনো দলই সাব্বিরকে দলে নিতে চায়নি। পুরো আসরে মাত্র একটি ফিফটি করেন সাব্বির। বিপিএলেও ছিলেন না ধারাবাহিক। রান খরায় থেকে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের একাদশ থেকেও বাদ পড়েছেন।

বিসিএলের সবশেষ আসরে দল পাননি আশরাফুল। পরে জাতীয় লিগে প্রমাণ করেন নিজেকে। বড় ইনিংস খেলার পাশাপাশি বল হাতেও পান সাফল্য।

ঘরোয়া ক্রিকেটের রানমেশিন তুষার ইমরান দল পাননি। ফিটনেসের বিপ টেস্টে নির্ধারিত মাত্রা ছুঁতে পারেননি এ ব্যাটসম্যান।

সোমবার মিরপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছে বিসিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট। আগের আসর থেকে ছয়জন করে ক্রিকেটার ধরে রাখার সুযোগ ছিল দলগুলোর।

চার দলের আসরের দুটির পৃষ্ঠপোষকতা করছে বিসিবি। সাউথ জোনের পৃষ্ঠপোষকতা থেকে প্রাইম ব্যাংক সরে যাওয়ায় বিসিবি দায়িত্ব নিয়েছে দলটির। তারা আগে থেকেই নর্থ জোনের পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছে। অপর দুটি দলের পৃষ্ঠপোষক ইসলামী ব্যাংক ও ওয়ালটন।

বিসিএল খেলবেন জাতীয় দলের সব তারকা ক্রিকেটারই। রাখা হয়েছে সাউথ আফ্রিকায় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া কয়েকজন যুবাকেও।

৩১ জানুয়ারি শুরু হয়ে বিসিএল শেষ হবে ২৪ ফেব্রুয়ারি। মিরপুর, চট্টগ্রাম, কক্সবাজারে হবে লিগ পর্বের ম্যাচ। সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ২১-২৪ ফেব্রুয়ারি হবে আসরের ফাইনাল।

এক নজরে চার দলের স্কোয়াড
বিসিবি সাউথ জোন: আব্দুর রাজ্জাক, আল-আমিন হোসেন, এনামুল হক বিজয়, মেহেদী হাসান, নুরুল হাসান সোহান, শফিউল ইসলাম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, ফজলে মাহমুদ রাব্বি, ফরহাদ রেজা, শামসুর রহমান শুভ, আল-আমিন (জুনিয়র), নাসুম আহমেদ, কামরুল ইসলাম রাব্বি, শাহরিয়ার নাফীস, রবিউল হক, ইরফান শুক্কুর, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, মাহমুদুল হাসান জয়, রুয়েল মিয়া।

বিসিবি নর্থ জোন: আরিফুল হক, নাঈম ইসলাম, জুনায়েদ সিদ্দিকী, মুশফিকুর রহিম, সানজামুল ইসলাম, ইবাদত হোসেন, রনি তালুকদার, সুমন খান, লিটন দাস, তাসকিন আহমেদ, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন, রিশাদ হোসেন, সঞ্জিত সাহা, সালাউদ্দিন শাকিল, জহুরুল ইসলাম অমি, তানবীর হায়দার, এনামুল হক জুনিয়র, মিজানুর রহমান, হোসেন আলি, মুক্তার আলি।

ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন: সাইফ হাসান, শুভাগত হোম, তাইবুর রহমান, নাজমুল হোসেন শান্ত, আরফাত সানি, শহিদুল ইসলাম, মোহাম্মদ মিঠুন, মোস্তাফিজুর রহমান, সৌম্য সরকার, রকিবুল হাসান, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, জাকের আলি অনিক, নাজমুল ইসলাম অপু, নাঈম শেখ, আব্দুল মজিদ, ইরফান হোসেন, সোহরাওয়ার্দী শুভ, শরিফুল ইসলাম, আকবর আলি, মেহেদী হাসান মিরাজ।

ইসলামি ব্যাংক ইস্ট জোন: ইমরুল কায়েস, আবু জায়েদ রাহি, আফিফ হোসেন, মুমিনুল হক, নাঈম হাসান, তামিম ইকবাল, রুবেল হোসেন, ইয়াসির আলি চৌধুরী, পিনাক ঘোষ, হাসান মাহমুদ, জাকির হাসান, নাসির হোসেন, তাইজুল ইসলাম, অমিত হাসান, রেজাউর রহমান, তানভির ইসলাম, ইমরান উজ্জামান, খালেদ আহমেদ, রনি চৌধুরী, মোহাম্মদ আশরাফুল।