চতুর্থ দিনে পিছলে গেলো ‘স্ট্রিট ডান্সার’!

মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৮, ২০২০

বিনোদন ডেস্ক : শ্রদ্ধা কাপুর এবং বরুণ ধাওয়ান অভিনীত সবচেয়ে বড় নাচের সিনেমার নাম ‘স্ট্রিট ডান্সার থ্রিডি’। সিনেমাটি তৈরি করছেন রেমো ডি’সুজা। প্রযোজনা করেছেন ভূষণ কুমার। ২৪ জানুয়ারি ভারতে ৩ হাজার ৭০০ এবং ভারতের বাইরে ৬৭০ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি।

এতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রভুদেবা, বরুণ ধাওয়ান, শ্রদ্ধা কাপুর, নোরা ফাতেহি। এছাড়াও এর বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন পুণিত পাঠক, রাঘব জুয়াল, অপরশক্তি খুরানা, শক্তি মোহন, সোনম বাজওয়া প্রমুখ।

মুক্তির পর সিনেমাটি মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেলেও বক্স অফিসে বেশ ভালো ব্যবসা করছে। প্রথম তিন দিনে সিনেমাটি আয় করেছে ৪১ কোটি ২৩ লাখ রুপি (শুধুমাত্র ভারতে)। প্রথম তিন দিন আয় বাড়লেও চতুর্থ দিনে সিনেমাটির আয় অনেক কমে গেছে।

প্রথমদিন দিন সিনেমাটির আয় হয় ১০ কোটি ২৬ লাখ রুপি, দ্বিতীয় দিন ১৩ কোটি ২১ লাখ, তৃতীয় দিন ১৭ কোটি ৭৬ লাখ রুপি আর চতুর্থ দিন সিনেমাটির আয় ৪ কোটি ৬৫ লাখ রুপি (শুধুমাত্র ভারতে)। মঙ্গলবার সিনেমা বাণিজ্য বিশ্লেষক তারান আদার্শ এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানান।

‘এবিসিডি’ সিরিজের ছবির গল্প মানেই মঞ্চে নাচের প্রতিযোগিতা। এই ছবিও তার ব্যতিক্রম নয়। গল্প শুরু হয় লন্ডন শহর দিয়ে। দু’টি নাচের দল ভারত ও পাকিস্তান। যারা সবসময়ই নিজেদের মধ্যে লড়াই করে চলেছে। সাহেজের ভূমিকায় বরুণ ধাওয়ান, যিনি ভারতীয় নাচের দলের মাথা। অন্যদিকে শ্রদ্ধা কাপুর এই ছবিতে পাকিস্তানের নাচের দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন, নাম ইনায়ত। প্রভু দেবার রেস্তোরাঁতে এই দুই দলই প্রায়ই আসে। এখানে ভারত–পাকিস্তান ক্রিকেট নিয়ে তরজাও যেমন চলে তেমনি দুই দলের মধ্যে চলে নাচের চ্যালেঞ্জও।

এই গল্পের পাশে আরো একটি বিষয়কে দেখানো হয়, সেটি হল অবৈধ অভিবাসীদের সমস্যা। যারা লন্ডনে তাদের বড় স্বপ্নকে নিয়ে আসেন কিন্তু টানেলের মধ্যে নিজেদের লুকিয়ে, ক্ষুধার্ত ও আশ্রয়হীন হয়ে তাদের স্বপ্নকে মরে যেতে হয়। ইনায়ত তেমনই বেশ কিছুজনকে সাহায্য করেন এবং সাহেজ নিজের ভুল বুঝতে পারেন। এরপর দুই দলই নাচের প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।