লাশ বহন করলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান

রবিবার, জানুয়ারি ২৬, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : তুরস্কের এলাজিগ প্রদেশে ভূমিকম্পে নিহত দুই ব্যক্তির জানাজার পর তাদের মরদেহ কাঁধে করে কবরে নিয়ে যান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। গত শুক্রবার তুরস্কের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ এলাজিগে শক্তিশালী ৬.৮ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। এ ভূমিকম্পে অন্তত ৩১ জন নিহত ও প্রায় ১৪শ’ মানুষ আহত হয়েছে বলে জানায় দেশটির কর্তৃপক্ষ।

সংবাদ সংস্থা ভয়েস অব আমেরিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, শনিবার বিকেলে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান সবচেয়ে আঘাতপ্রাপ্ত অঞ্চল পরিদর্শন করেন এবং ভূমিকম্পে নিহত এক মা ও ছেলের জানাজায় অংশ নেন। এ সময় তিনি ভূমিকম্প নিয়ে নেতিবাচক কথার পুনরাবৃত্তি না করার জন্য জনগণকে সতর্ক করেন।

প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, ‘গুজবে কান দেবেন না, কারও নেতিবাচক, বিরোধী প্রচার শুনবেন না এবং জেনে রাখুন যে আমরা আপনাদের সেবক।’

ভূমিকম্পের পর পরই উদ্ধার তৎপরতায় ব্যাপকভাবে অংশ নেয় দেশটির প্রশাসন। এই উদ্ধার অভিযান তদারকি করতে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফারেতিন কোসাসহ আরও বেশ কয়েকজন মন্ত্রী প্রদেশ দুটিতে ছুটে যান।

তুরস্কের দুর্যোগ ও জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (এএফএডি) জানিয়েছে, শক্তিশালী ভূমিকম্পের পর ৬০ বার পরাঘাত (আফটারশক) অনুভূত হয়েছে।

তুরস্কে এর আগেও বেশ কয়েকটি শক্তিশালী ভূমিকম্প হয়েছিল। ১৯৯৯ সালের আগস্টে পশ্চিমাঞ্চলীয় ইজমিত শহরে ৭ দশমিক ৬ মাত্রার এক ভূমিকম্পে ১৭ হাজারেরও বেশি মানুষের প্রাণহানি হয়েছিলেন।

২০১১ সালে পূর্বাঞ্চলীয় শহর ভান ও এরসিসে আরেক ভূমিকম্পে কমপক্ষে ৫২৩ জনের প্রাণহানি ঘটেছিল।