কিশোরীকে গণধর্ষণের আগে জন্মদিনের কেক কেটে উল্লাস করে ওরা

রবিবার, জানুয়ারি ২৬, ২০২০

গাজীপুর : শ্রীপুরে জন্মদিনের অনুষ্ঠানে দাওয়াত দিয়ে নিয়ে কিশোরীকে গণধর্ষণের ঘটনার ১০ দিনের মাথায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছেন র‌্যাব-১ গাজীপুর ক্যাম্পের সদস্যরা।

তারা হচ্ছে কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার শরীফ হোসেন, ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ইমরান হাসান সুজন ও ত্রিশাল উপজেলার ১৬ বছর বয়সী কিশোর এবং গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার শরিফ উদ্দিন মোল্লা।  র‌্যাব-১ গাজীপুর ক্যাম্পের কমান্ডার আবদুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে ওই চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা র‌্যাবকে জানিয়েছে, মেয়েটিকে ডেকে নিয়ে নয়নপুরের একটি বাসায় জন্মদিনের কেক কেটে সবাই মিলে আনন্দ-উল্লাস করে। তার পর নেশাজাতীয় দ্রব্য মেশানো এনার্জি ড্রিংক পান করিয়ে অজ্ঞান করে এবং একটি ঝোপের ভেতরে হাত-পা ও মুখ বেঁধে চারজন মিলে ধর্ষণ করে। এ সময় ইমরান হাসান সুজন তার মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে তার ফেসবুক আইডিতে আপলোড করে।

গণধর্ষণের এ ঘটনাটি ঘটে গত ১৫ জানুয়ারি। এ ঘটনায় শ্রীপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয় ১৬ জানুয়ারি। গতকাল র‌্যাব ১-এর গাজীপুর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, শরীফ হোসেনকে গাজীপুরের রাজবাড়ী এলাকা থেকে শুক্রবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যানুযায়ী বাকি তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

শ্রীপুর থানার এসআই ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাকিব নাজমুল বলেন, ঘটনার পর পরই ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে মোছা. ঊর্মি নামের এক নারীকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়।