আচরণবিধি লঙ্ঘন করে স্কুল মাঠে সমাবেশ: যোগ দেননি আতিকুল

শনিবার, জানুয়ারি ২৫, ২০২০

ঢাকা : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে আচরণবিধি আচরণবিধি লঙ্ঘন হবে জেনে কালাচাঁদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কালাচাঁদপুর হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের মাঠে ১৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে যোগ দেননি আতিকুল ইসলাম।

এ স্কুলের মাঠে মঞ্চ তৈরি করে নির্বাচনী সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সেখানে সকাল থেকেই স্কুল ও কলেজের বিভিন্ন শ্রেণির ক্লাস চলছিল। তবে সমাবেশের কারণে সকাল সাড়ে ১০টার পর স্কুল ও কলেজের ক্লাস বন্ধ হয়ে যায়।

কালাচাঁদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কালাচাঁদপুর হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের মাঠে ক্লাস বন্ধ করে মাঠে নির্বাচনী সমাবেশ ও উচ্চ স্বরে নির্বাচনী গান ও স্লোগান চলছিল। সাড়ে ১০টার পর থেকে স্কুলের বেশির ভাগ ক্লাস বন্ধ করা হয়। তবে কলেজের ক্লাসের সময়েই মাঠে সমাবেশ হয়।

স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, স্কুলের মাঠে রাজনৈতিক ও নির্বাচনী সমাবেশের অনুমতি নেই। তা ছাড়া তাঁদের কাছ থেকে কেউ অনুমতি নেয়নি।

কালাচাঁদপুর মোড়ে নির্বাচনী সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান, উত্তরের ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ–সমর্থিত কাউন্সিলর পদপ্রার্থী জাকির হোসেন, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হাসিনা বারী ও ১৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

এরপর যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে প্রগতি সরণিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমি চাই না কোনো আচরণবিধি লঙ্ঘন হোক। এ জন্য স্কুলের মাঠের সমাবেশ বাতিল করে দিয়েছি। এ কাজে কাউকে উৎসাহ দেব না। আমি চাই না নির্বাচনী প্রচারণায় কোনো শিশু বা ছাত্রছাত্রী থাকুক।’

এর আগে রোববার নির্বাচনী ইশতেহার দেওয়া হবে বলে শনিবার দুপুরে নির্বাচনী প্রচারের ১৬তম দিনে ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের নদ্দা এলাকার কালাচাঁদপুর মোড়ে আয়োজিত নির্বাচনী সমাবেশে জানান আতিকুল ইসলাম।

আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আর বেশি দিন বাকি নেই। আজ বাদে ছয় দিন আছে। এ ছয় দিনে সব ভোটারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাইতে হবে।’

তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান ভোটারদের গিয়ে বলতে হবে একটি আধুনিক ও যানজটমুক্ত শহর গড়তে নৌকায় ভোট দিতে।

এরপর সাইকেল চালিয়ে কালাচাঁদপুর বাজারে প্রচার চালান আতিকুল ইসলাম।