চীনে করোনাভাইরাসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৫, বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক

শুক্রবার, জানুয়ারি ২৪, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনে দ্রুত ছড়িয়ে যাওয়া করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫ জনে। এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে পর্যন্ত ৮ শতাধিক মানুষ। শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে চীন সরকার।

এখন আতঙ্কের আরেক নাম করোনা ভাইরাস। এই মারাত্মক ভাইরাসের কারণে এখন চিনের প্রতিটি মানুষই যেন ঘরের দরজায় মদূতের কড়া নাড়া শুনতে পাচ্ছেন। মানুষের নিঃশ্বাস প্রশ্বাসের সঙ্গেই ছড়িয়ে যাচ্ছে এই প্রাণঘাতী ভাইরাস। মানুষের সংস্পর্শেই সংক্রমিত হচ্ছে এই করোনা ভাইরাস । দীর্ঘ পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর নিশ্চিত করে জানিয়েছেন চিনের চিকিৎসকরা। তাই আর শুধু চিন নয়, করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে ভুগছেন ভারত সহ গোটা বিশ্বের মানুষ।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, চীনের উহান শহরেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। মূলত এই শহর থেকেই প্রথম করোনা ভাইরাস ছড়ায়।এছাড়া চীনের হুবেই প্রদেশে নতুন করে আরও ৬২ জন নতুন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে। এদিকে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫ জনে। অতি দ্রুত সময়ে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে এবং নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকেই।

চীনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন চন্দ্র নববর্ষ উপলক্ষে চীনের নাগরিকরা দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণে গেলে এই ভাইরাস দ্রুত ছড়াতে পারে । এদিকে এখনই এই ভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্যাপী জরুরী অবস্থা ঘোষণার পক্ষে না বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এই বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আদহানোম গ্রেবেইয়েসুস বলেন, এই ভাইরাসের জন্য চীনে জরুরী অবস্থা জারি করা হয়েছে।এটি নিয়ে এখনই বিশ্বে জরুরী অবস্থার ঘোষণার মত পরিস্থিতি হয়নি।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বর চীনের উহান শহরে করোনা ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। এছাড়া প্রতিনিয়ত বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এছাড়া এই ভাইরাসে ইতিমধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়।