মিয়ানমারসহ ৭ দেশের নাগরিকদের জন্য মার্কিন ভিসা নিষিদ্ধ হচ্ছে

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৩, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমার, বেলারুশ, ইরিত্রিয়া, কিরগিজস্থান, নাইজেরিয়া, সুদান এবং তাঞ্জানিয়ার জনগণকেও যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধ/সীমিত করার কথা ভাবছে ট্রাম্প প্রশাসন। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে এমন নির্দেশ শিগগিরই জারি করা হচ্ছে বলে হোয়াইট হাউজের উদ্ধৃতি দিয়ে বিশ্বখ্যাত দৈনিক ‘দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল’ বুধবার (২২ জানুয়ারি) জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে দায়িত্ব গ্রহণের পরই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াসহ মুসলিম অধ্যুষিত ৭ দেশের নাগরিকের জন্য মার্কিন ভিসা নিষিদ্ধের আদেশ জারি করেন। এগুলো হচ্ছে- ইরান, লিবিয়া, সোমালিয়া, সিরিয়া এবং ইয়েমেন। ভেনেজুয়েলার রাজনীতিকদেরকেও নিষিদ্ধের আওতায় রাখা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা থেকে। এমন নির্দেশের বিরুদ্ধে ফেডারেল কোর্টের স্থগিতাদেশের মধ্যেই নতুন আরেকটি নির্দেশ জারির আভাস দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

অভিবাসীদের শ্রম আর মেধায় গড়ে উঠা যুক্তরাষ্ট্রকে অভিবাসীহীন করার সুগভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে গত ৩ বছরে ট্রাম্প প্রশাসন বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। সুইজারল্যান্ডের ডেভসে অনুষ্ঠানরত ‘ওয়াল্ড ইকনোমিক ফোরামে’ উপরোক্ত দেশের লোকজন চরমপন্থি, সন্ত্রাসী, মানবতার শক্রর মত আচরণ করছে বিধায় তারা যুক্তরাষ্ট্রের জন্যে বিপজ্জনক বলে মন্তব্য করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এজন্য সেখান থেকে ওয়াশিংটন ডিসিতে ফিরেই মিয়ানমার, বেলারুশ, ইরিত্রিয়া, কিরগিজস্থান, নাইজেরিয়া, সুদান এবং তাঞ্জানিয়ার নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা-বঞ্চিত নির্দেশ প্রদান করার কথা বলেছেন ট্রাম্প।

উল্লেখ্য, কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে অভিশংসনের পর উচ্চকক্ষ সিনেটে ট্রাম্পের বিচার শুরু হয়েছে। তার মধ্যেই অভিবাসন-বিরোধী এমন পদক্ষেপ গ্রহণের কথা বলে ট্রাম্প প্রকারান্তরে নিজের অবস্থানকে আরও টালমাটাল করছেন বলে মানবাধিকার ও অভিবাসন নিয়ে কর্মরত সংগঠনের পক্ষ থেকে মন্তব্য করা হয়েছে।