কিয়ানিকেও সোলাইমানির ভাগ্য বরণ করতে হবে: যুক্তরাষ্ট্র

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৩, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যদি মার্কিন নাগরিকদের হত্যায় একই পথ বেছে নেন, তবে নিহত কাসেম সোলাইমানির উত্তরসূরিকেও একই ভাগ্য বরণ করতে হবে বলে জানিয়েছেন ইরান বিষয়ক যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ প্রতিনিধি ব্রিয়ান হুক।

গত ৩ জানুয়ারি বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়ে ইরানের প্রভাবশালী জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করে মার্কিন বাহিনী।-খবর রয়টার্সের

মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন বাহিনীর ওপর ইরান-ঘনিষ্ঠ মিলিশিয়াদের হামলার মূলহোতা হিসেবে সোলাইমানিকে আখ্যায়িত করে আসছিল যুক্তরাষ্ট্র। ইরানের সঙ্গে সই হওয়া পরমাণু অস্ত্র থেকে এক তরফাভাবে সরে যাওয়ার পর উত্তেজনার মধ্যেই এই জেনারেলকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে ইরানের প্রভাব বিস্তারের মূল কারিগর বলা হয়ে থাকে সোলাইমানিকে। তাকে হত্যার প্রতিশোধ নিতে প্রথমবারের মতো ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে সামরিক হামলা চালায় ইরান। যদিও এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

সোলাইমানি নিহত হওয়ার পর তার উত্তরসূরি হিসেবে আল-কুদসের প্রধান পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কিয়ানিকে। নিয়োগ পাওয়ার পরেই সোলাইমানির পথ অনুসরণের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তিনি।

আরবি ভাষার দৈনিক আশরাক আল-আওসাতকে দেয়া সাক্ষাতকারে মার্কিন প্রতিনিধি ব্রিয়ান হুক বলেন, আমেরিকানদের হত্যায় ইসমাইল কিয়ানিও যদি একই পথ ধরে চলেন, তবেও তাকেও একই ভাগ্য বরণ করতে হবে।

দাভোসে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অনেক আগেই পরিস্কার করে দিয়েছেন যে আমেরিকান কিংবা আমেরিকার স্বার্থে আঘাত হানলে চূড়ান্ত জবাব দেয়া হবে।

কাজেই এটা কোনো নতুন হুমকি নয় জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমেরিকান স্বার্থ রক্ষায় চূড়ান্ত জবাব দেয়ার কথা বলে আসছেন প্রেসিডেন্ট। আমি মনে করি, ইরানি সরকার উপলব্ধি করতে পেরেছে যে তারা আমেরিকায় হামলা চালাতে পারবে না এবং শাস্তি থেকেও রেহাই পাবে না।