অ্যাসিড আক্রান্ত বোনকে নিয়ে মুখ খুললেন কঙ্গনা

মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২১, ২০২০

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডের অন্যতম শক্তিশালী অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। পর্দায় তিনি যখন অভিনয় করেন তখন অন্য কোনো দিকে চোখ ফেরানো যায় না। তবে পর্দার বাইরেও তিনি সব সময়েই নিজের মতামত স্পষ্ট করে বলেন। একটা সময়ে কিছু নিম্ন মানের ছবিতে তিনি অভিনয় করেছেন। একথা সম্প্রতি নিজেই স্বীকার করেছেন কঙ্গনা।

কঙ্গনার বোন রাঙ্গোলি চন্দেল অ্যাসিড হামলার শিকার হয়েছিলেন। তাই বোনর চিকিৎসার টাকার জন্য কিছু নিম্নমানের ছবিতে অভিনয় করেছিলেন তিনি। এমনটাই জানান কঙ্গনা। কঙ্গনা বলেন, অ্যাসিড হামলার শিকার রাঙ্গোলিকে ভালো ডাক্তার দেখানোর জন্য আমি একসময় কিছু নিম্নমানের ছবি ও চরিত্রে অভিনয় করেছি। সেই সব প্রথম দিকের কথা।

কঙ্গনা জানিয়েছেন, সে সময় রাঙ্গোলির চিকিৎসার প্রয়োজনে টাকা জোগাড় করতে অনেককিছুই করতে হয়েছে তাকে। সম্প্রতি এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকার দেয়ার সময় পুরোনো দিনের অনেক কথাই প্রকাশ্যে এনেছেন বলিউডের কুইন।

কঙ্গনার বলছেন, “তখন আমার বয়স মাত্র ১৯, আমার সামনে তখন উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ। সেই সময়ে আমার বোনের সঙ্গে বিকৃত মানসিকতার কিছু লোক ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটায়। তখন লড়াইটা মোটেও সহজ ছিল না। তখন আর্থিকভাবে লড়াই করাটাও কঠিন ছিল। তখন আমি প্রতিষ্ঠিত হয়ে উঠিনি। কিন্তু দেখছিলাম রাঙ্গোলি মানসিক অবসাদের মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছে। আমি বুঝলাম, এই মুহূর্তে বাড়ি বসে কাঁদলে চলবে না।

এই সময়েই বেশ কয়েকটি নিম্ন মানের ছবিতে অভিনয় করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন কঙ্গনা। তার কথায়, যে চরিত্র আমার জন্য মোটেই উপযুক্ত নয়, সেই ছবিও করি। আমার তখন একটাই লক্ষ্য ছিল, আমি যেন আমার বোনকে দেশের সেরা ডাক্তার দেখাতে পারি। কঙ্গনাই জানিয়েছেন, রাঙ্গোলির মোট ৫৪টি অস্ত্রোপচার হয়েছিল।

কঙ্গনা আরো বলেছেন, শুরুর দিনগুলিতে একা থাকতাম। সেসময় আমার একা থাকার সুযোগ অনেকেই নেয়ার চেষ্টা করেছে। তবে এই লড়াই আমায় অনেক কিছুই শিখিয়েছে। আমি কখনোই চাইব না, ভবিষ্যতে আমার সন্তানরা একই পরিস্থিতির সম্মুখীন হোক।

প্রসঙ্গত, আসন্ন ‘পাঙ্গা’ ছবিতে কঙ্গনা একজন কাবাডি খেলোয়াড়ের মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। ২৪ জানুয়ারি মুক্তি পেতে চলেছে এই ছবিটি। সূত্র: কলকাতা ২৪x৭