শেষ হাসি হাসল কোহলিরা

সোমবার, জানুয়ারি ২০, ২০২০

স্পোর্টস ডেস্ক : তিন ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ওয়ানডে অস্ট্রেলিয়াকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ভারত। এই জয়ের ফলে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে স্বাগতিকরা। মূলত রোহিত শর্মা এবং অধিনায়ক বিরাট কোহলির ব্যাটে চড়েই সিরিজ জয়ের স্বাদ পেল ভারত।

বড় লক্ষ্যে খেলতে নেমে ভারতকে দারুণ শুরু এনে দেন দুই ওপেনার রোহিত শর্মা এবং লোকেশ রাহুল। এই দুজনে যোগ করেন ৬৯ রান। রাহুল ১৯ রান করে অ্যাস্টন আগারের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে আউট হন। এরপর বিরাট কোহলিকে নিয়ে ১৩৭ রানের জুটি গড়েন রোহিত। ক্যারিয়ারের ২৮তম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে রোহিত ফেরেন ১১৯ রান করে অ্যাডাম জাম্পার বলে মিচেল স্টার্কের হাতে ক্যাচ দিয়ে। সেঞ্চুরি আশা জাগিয়ে কোহলি ফেরেন ৮৯ রান করে। ভারতের অধিনায়ককে ফিরিয়েছেন জস হ্যাজেলউড।

এরপর শ্রেয়াশ আইয়ার ৪৪ এবং মনিষ পান্ডে ৮ রান করে অপরাজিত থেকে ভারতকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। সেঞ্চুরি তুলে নেয়া ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মা ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেছেন।

এর আগে বেঙ্গালুরুর এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় অস্ট্রেলিয়া। মাত্র ৩ রান করে শুরুতেই আউট হন ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি আরেক ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ। তাঁর ব্যাট থেকে আসে ১৯ রান। এরপর দারুণ এক জুটি গড়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপর্যয় সামাল দেন মার্নাস ল্যাবুশেন এবং স্টিভেন স্মিথ। এই দুজনে তৃতীয় উইকেটে ১২৭ রানের জুটি গড়েন। ৪৬ রানে ২ উইকেট হারানোর পর অস্ট্রেলিয়াকে তারা ১৭৩ রান পর্যন্ত নিয়ে যান তারা।

ল্যাবুশেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ফিরে যান ৫৪ রান করে। সবাইকে চমকে দিয়ে ৪ নম্বরে নামিয়ে দেয়া হয় মিচেল স্টার্ককে। যদিও অস্ট্রেলিয়ার এই টোটকা কাজে লাগেনি। স্টার্ক মাত্র ৩ বল খেলে কোনো রান করার আগেই ফেরেন তিনি। এরপর অ্যালেক্স ক্যারিকে নিয়ে জুটি বাঁধেন স্মিথ। দুজন মিলে যোগ করেন ৫৮ রান। ক্যারির ব্যাট থেকে আসে ৩৫ রান।

ক্যারিয়ারের নবম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে স্মিথ আউট হন ১৩১ রান করে। লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানরা দাঁড়াতে না পারলে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস থামে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৮৬ রানে। মোহাম্মদ শামি ৪ উইকেট নিয়ে ভারতের সেরা বোলার। এ ছাড়া রবীন্দ্র জাদেজা নেন ২টি উইকেট। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন নবদ্বীপ সাইনি এবং কুলদ্বীপ যাদব।