রাঙ্গামাটিতে দুপক্ষের গোলাগুলি, নিহত ১

রবিবার, জানুয়ারি ১৯, ২০২০

রাঙ্গামাটি : রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি লংগদুতে সীমান্তে দুপক্ষেরে গোলাগুলিতে জেএসএস সংস্কার গ্রুপের নেতা পান্ডব চাকমা নিহত হয়েছে। তার সহযোগী অর্জুণ চাকমা (৩২) আহত হয়েছে।

রোববার(১৯ জানুয়ারি) বিকেলে বাঘাইছড়ি-লংগদু উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা ১ নম্বর আটারকছড়া ইউনিয়নের দুর্গম বান্দরতলা ছড়া নামক পাহাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত পান্ডব চাকমা জেএসএস সংস্কার গ্রুপের প্রথম সারির এক নেতা বলে জানা গেছে। তবে আহত অর্জুণ চাকমা এখনো নিখোঁজ রয়েছে।

এদিকে এ ঘটনার পরপরই লংগদু জোনের একদল সেনাসদস্য ঘটনা স্থলে অভিযান পরিচালনা করে মাথায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পান্ডব চাকমার লাশ উদ্ধার করেছে বলে জানায়েছেন আটারক ছড়া এলাকাবাসী।

স্থানীয় আটারকছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মঙ্গল কান্তি চাকমা জানান, বিকালে বাঘাইছড়ি-লংগদু সীমান্তবর্তী দুর্গম বাদুরতলা পাহাড়ী গ্রামে দুই পক্ষের মাঝে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

তিনি স্থানীয় গ্রামবাসীর বরাত দিয়ে জানান ঘটনাস্থলে জেএসএস সংস্কারের শীর্ষ নেতা পান্ডব চাকমার লাশ তারা দেখতে পায় তবে তার সহযাগী অর্জুণ চাকমা গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। তবে তিনি কোথায় আছে কেউ বলতে পারছে না।

রাঙ্গামাটি পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর কবির জানান, ঘটনার খবর শুনলেও যতক্ষণ পর্যন্ত লাশ না পাওয়া যাবে, ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা কিছু বলতে পারব না।

ঘটনার বিবরনে জানা যায়, রবিবার সকালের দিকে ওই এলাকায় পান্ডব চাকমা এবং আরেক সহকর্মী অর্জুন চাকমা (৩২) সাংগঠনিক কাজে বের হন। এ সময় তাদের লক্ষ্য করে অতর্কিত গুলি চালানো হয়।

এ সময় তারাও পাল্টা গুলি চালায় এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান পান্ডব চাকমা। ঘটনাস্থলে পান্ডবের লাশ পড়ে থাকতে দেখেছেন বলে নিশ্চিত করেন স্থানীয়রা। পান্ডব চাকমার লাশ উদ্ধার করা হলে ও পান্ডবের সহযোগী অর্জুন চাকমা এখনো নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।