উজিরপুরে পানিতে ডুবে ভাই-বোনের মৃত্যু

রবিবার, জানুয়ারি ১৯, ২০২০

বরিশাল : বরিশালের উজিরপুর উপজেলার শোলক গ্রামে পানিতে ডুবে মামাতো-ফুফাতো দুই ভাই-বোনের মৃত্যু হয়েছে। শশিবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুরে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষনা করেন। মৃতরা হলো, শোলক ইউনিয়নের শোলক গ্রামের ওবায়েদুল হক হাওলাদারের মেয়ে মারিয়া আক্তার (৫) ও তার বোন ডলি বেগমের ছেলে আরাফাত ছানী (৫) । আরফাত ছানীর বাবা প্রবাসী শহিদুল ইসলাম বড়াকোঠা ইউনিয়নের বাসিন্দা। পারিবারি সূত্রে জানাগেছে, ডলি বেগমের স্বামী প্রবাসী হওয়া সে তার একমাত্র সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়িতে থাকতো। শনিবার সকালে সবার অজান্তে খেলার ছলে ভাইয়ের মেয়ে ও তার ছেলে বাড়ির সামনের পুকুরে পরে যায়। অনেক খোঁজাখুজির পর পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় আরাফাত ও মারিয়াকে উদ্ধার করে গৌরনদী উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত বলে ঘোষনা করেন। এঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আফজাল হোসেন।

পল্টুনসহ ট্রাকে দেবে ফেরি চলাচল বন্ধ

বরিশাল : বরিশাল-বাবুগঞ্জ-মুলাদী-হিজলা সড়কের মীরগঞ্জ ফেরীঘাটো পন্টুন ও গ্যাংওয়ে অতিরিক্ত বৈদ্যুতিক খাম্বা বোঝাই ট্রাক সহ ডুবে গেছে। শনিবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় এই দুর্ঘটনার পর থেকে ওই অঞ্চলের রুটে সরাসরি যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। মীরগঞ্জ ফেরীঘাটের সুপারভাইজার মো. রফিকুল ইসলাম জানান, বৈদ্যুতিক খাম্বা বোঝাই ট্রাকটি ফেরী থেকে উঠে গ্যাংওয়ে পাড় হওয়ার সময় ট্রাকের ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। খাড়া ঢাল থাকায় ট্রাকটি মুহূর্তে পেছনের দিকে পন্টুনে গিয়ে ঠেকে যায়। এতে অতিরিক্ত ওজনের চাপে পন্টুন কাত হয়ে পানি ঢুকে যায়। এ সময় ট্রাকের পেছনের অংশ সহ পন্টুন পুরোপুরি এবং গ্যাংওয়ে আশিংক ডুবে যায়। ট্রাকে থাকা চালক ও হেলপার নিরাপদে বের হয়ে পালিয়ে যায়। ফেরী থেকে ওঠার সময় ট্রাকটির ইঞ্জিনের স্টার্ট বন্ধ না হলে এই দুর্ঘটনা ঘটতো না বলে মনে করেন রফিকুল ইসলাম। এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের বরিশাল ফেরী বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আজম শেখ জানান, ট্রাকটি অতিরিক্ত মাল বোঝাই হওয়ায় দুর্ঘটনা ঘটেছে। ট্রাকের খাম্বাগুলো আগে উত্তোলন করে ট্রাকটি উদ্ধারের পর ক্রেন দিয়ে ডুবে যাওয়া পন্টুন উদ্ধারের চেস্টা চলছে। একই সাথে দ্রুত সময়ের মধ্যে সরাসরি যান চলাচল শুরুর জন্য ওই ঘাটের পাশে একটি বিকল্প গ্যাংওয়ে নির্মান সহ একটি পন্টুন প্রতিস্থাপনের কাজ চলছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং ফেরী বিভাগ যৌথভাবে এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।