অনশন ভাঙলেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা

রবিবার, জানুয়ারি ১৯, ২০২০

ঢাকা: স্বরস্বতী পূজার দিন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবীতে অনশনরত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ৫৫ ঘণ্টা পরে অনশন ভেঙেছেন।

নির্বাচনের তারিখ পেছানোর ঘোষণা আসার পরে শনিবার রাত পৌনে নয়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যসহ প্রশাসনিক দায়িত্বে থাকা বেশ কয়েকজন শিক্ষক জুস খাইয়ে অনশন ভাঙান। এরপরেই আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা কর্মসূচি সমাপ্ত ঘোষণা করেন।

এর আগে শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙাতে রাজু ভাস্কর্যে যান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান, সহ-উপাচার্য (প্রশাসন) মুহাম্মদ সামাদ, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক ভূঁইয়া, সহকারী প্রক্টর বদরুজ্জামান ভূঁইয়া ও সীমা ইসলাম, জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ মিহির লাল সাহাসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষক।

অনশন ভাঙানোর পরে উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা একটি যৌক্তিক দাবি জানিয়েছিলেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও মানবিক মূল্যবোধ দ্বারা তাড়িত হয়ে তাঁরা এই দাবি করেছেন। নির্বাচন কমিশন সেই দাবিকে সম্মান জানিয়েছে। এ জন্য কমিশনকে ধন্যবাদ।’

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের পক্ষে জগন্নাথ হল সংসদের সহসভাপতি (ভিপি) ও হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক উৎপল বিশ্বাস দাবি বাস্তবায়িত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, শিক্ষক সমিতি, জগন্নাথ হল প্রশাসন, টিএসসিভিত্তিক বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানান। দাবি পূরণ হওয়ায় ক্যাম্পাসে আনন্দমিছিলও করেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে নির্বাচন কমিশন (ইসি) কার্যালয়ে বৈঠক শেষে শনিবার রাতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকার দুই সিটিতে ভোট গ্রহণের নতুন তারিখ ঘোষণা করেন।

প্রসঙ্গত, হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব সরস্বতীপূজার দিন ভোটের তারিখ দেওয়ায় সেটি পরিবর্তনের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।