জাফরুল্লাহকে তালাবদ্ধ করে রেখেছে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

জাহিন সিংহ, সাভার থেকে : গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম ট্রাস্টি ডা.জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে টানা দেড়ঘন্টা তালা তালাবন্ধ করে অবরুদ্ধ করে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার দুপুরে সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনে ৪র্থ তলার একটি রুমে শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনা সভায় তোপের মুখে পরেন তিনি। গণ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের বাৎসরিক বাজেট পাশ ও মেয়াদ বৃদ্ধি সংক্রান্ত সাধারণ সভায় যোগ দিতে এসেছিলেন তিনি।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ে বৈধ উপাচার্য নিয়োগের ব্যাপারে আশ্বাস দিয়েও তার কোনো প্রতিফলন শিক্ষার্থীদের সামনে উপস্থাপন করতে না পারায় এবং কয়েকটি বিভাগের অনুমোদন সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনের বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ফলপ্রসূ ভূমিকা না থাকায় সভা বর্জন করে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিদল।

এরপর গণ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ও সাধারণ ছাত্র পরিষদের নেতাকর্মীরা সভাকক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয়। এসময় ঐ কক্ষে ডা.জাফরুল্লহর ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো.দেলোয়ার হোসেন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মীর মর্ত্তুজা আলী বাবু, সিনিয়র সহকারী রেজিস্ট্রার আবু মুহাম্মদ মোকাম্মেল, জনসংযোগ কর্মকর্তা শিরিন সুলতানাসহ বিভিন্ন বিভাগের প্রধানগণ অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি (ভিপি) মো.জুয়েল রানা এসময় জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, ‘শুধুমাত্র আপনার ভূমিকার অভাবে উপাচার্যেও অনুমোদন, ব্যবসায় প্রশাসন ও ফিজিওথেরাপি বিভাগের সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। আপনি আজ শিক্ষার্থীদের সাথে বসে সমাধান করতেই হবে। আমাদের ন্যায্য দাবি পূরণ না করলে আপনাকে আমরা মানি না। এখানে অল্প খরচে শিক্ষা দেয়া হয় বলে দাবি করা হলেও কখনই বিশ্ববিদ্যালয়ের এক হাজার টাকাও মাফ হয় না।

ফিজিওথেরাপি বিভাগের শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আমাদের বিভাগের যে অনুমোদন নেই তা শিক্ষকরা জানিয়েছেন ১০ বছর পর। তারা নাকি চাকরি হারানো ভয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে প্রশ্ন করতে ভয় পান। অবিলম্বে বিভাগের অনুমোদন গ্রহণ করে আমাদের শিক্ষা জীবনের স্বীকৃতি প্রদান করা হোক।’

এরপর ক্যাম্পাসের ভিতরেই বিভিন্ন শ্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে শিক্ষার্থীরা। পরে পায় দেড় ঘন্টা অবরুদ্ধ থাকার পর বিভিন্ন বিভাগের উপস্থিত সকল ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে আবারো আলোচনায় বসেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এসময় শিক্ষার্থীরা তাদের বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন এবং ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী তার বক্তব্যে সমস্যাগুলি সমাধানের আশ্বাস ও নানা সীমাবদ্ধাতার কথা বলেন।