অপসারণের পথে ডোনাল্ড ট্রাম্প

শনিবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারসহ দুটি অভিযোগ অনুমোদিত হয়েছে। শুক্রবার মার্কিন কংগ্রেসের হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভ-এর জুডিশিয়ারি কমিটিতে ওই অভিযোগে অনুমোদন পেয়েছে। হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভ-এর মূল জুডিশিয়ারি কমিটি ট্রাম্পকে ইম্পিচমেন্ট সংক্রান্ত দুটি আর্টিক্যালের অনুমোদন দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

হাউজ অব রিপ্রেজেন্টিটিভের জুডিশিয়ারি কমিটিতে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অনুমোদন পাওয়া দুটি আর্টিক্যাল হলো: বিচার প্রক্রিয়ায় বাধাদান এবং ক্ষমতার অপব্যবহার। এর ফলে ট্রাম্পের অপসারণের পথ আরও খানিকটা প্রশস্ত হলো। এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

জানা গেছে, আগামী সপ্তাহে এ বিষয়ে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টিটিভ-এ ভোটাভুটি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী বুধবার এ সংক্রান্ত ভোটাভুটি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ক্ষমতায় থেকে কি আদৌ ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন?-এ নিয়ে কংগ্রেসে টানা দুদিন বিতর্ক চলেছে। এরপর ভোটাভুটির ওপর সাময়িক স্থগিতাদেশ জারি করেন ডেমোক্রেটিক কমিটির চেয়ারম্যান জরি ন্যাডলার। আরে এতে ক্ষেপে যান রিপাবলিকান সদস্যরা। এরপরই তড়িঘড়ি করে শুক্রবার হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভ-এর তদন্ত কমিটিতে ভোটাভুটি হয়। কমিটিতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিপক্ষে ২৩টি এবং পক্ষে ১৭টি ভোট পরেছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে ওই কমিটি ক্ষমতার অপব্যবহারের দুটি অভিযোগেই ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অপসারণ করা হবে কিনা, সেই প্রস্তাবের ওপর আগামী সপ্তাহে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভ-এ বিতর্ক ও ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হবে। এই হাউজে ডেমোক্র্যাটরা সংখ্যাগরিষ্ঠ। ফল এই হাউজে সহজেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে ইমপিচ বা অপসারণ করার প্রস্তাব পাস হয়ে যেতে পারে।

মার্কিন আইন বলছে, প্রেসিডেন্টকে অপসারণ করতে ৫১ শতাংশ ভোট প্রয়োজন। এরপর সিনেট এই প্রস্তাব পাশ হওয়া জরুরী। কিন্তু সেখানে আবার রিপাবলিকানরা সংখ্যাগরিষ্ঠ।